About Iqbal Hossain



২ সপ্তাহের মধ্যেই কাজ করবে
💯% ফলাফলপাবেনঃ-
✅ত্বক ফর্সা করে
✅ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে
✅ব্রনের দাগ দূর করে
✅বয়সের ছাপ দূর করে
✅মেছতার দাগ দূর করে
✅রোদ্রে পোড়া দাগ দূর করে
✅চোখের নিচে কালো দাগ দূর করে
✅স্কীনের তৈলাক্ত ভাব দূর করে
✅আপনার ফেইসের সমস্ত দাগ দূর করবে।
✅এটা আপনার স্কিনে স্থায়ীভাবে কাজ করবে।

আমরা যেভাবে ই-পাসপোর্ট পাবোঃ

প্রথমে রাজধানীর আগারগাঁও, উত্তরা ও যাত্রবাড়ী পাসপোর্ট অফিসে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে ২০২০ সালের মধ্যেই সারাদেশে চালু হবে এই পাসপোর্ট সেবা। প্রতিদিন প্রায় ২৫ হাজার ই-পাসপোর্ট ইস্যু করা হবে।

নতুন প্রযুক্তির এই পাসপোর্ট কিভাবে পাওয়া যাবে?

ই-পাসপোর্টের আবেদনঃ

অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করে সাবমিট করতে হবে নতুন পাসপোর্টের জন্য। সেক্ষেত্রে আগেই ব্যাংকের অনলাইন মাধ্যমে টাকা জমা দিয়ে ব্যাংক থেকে সরবরাহ করা রেফারেল নম্বর কোডটি ব্যবহার করতে হবে অনলাইন আবেদন ফরমে। আবার কেউ চাইলে ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড দিয়েও পাসপোর্ট ফি জমা দিতে পারবেন। প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করে সাবমিট করার পর প্রিন্ট কপি নিতে হবে। সেই কপি স্ব-শরীরে গিয়ে পাসপোর্ট অফিসে জমা দিতে হবে। আবেদন ফরমে ছবি ও সত্যায়ন করা না লাগলেও পুলিশ ভেরিফিকেশন লাগবে।

অনলাইনে পূরণ না করে PDF ফরম ডাউনলোড করে হাতেও পূরণ করা যাবে। ফরম পূরণের সময় ছবি সত্যায়ন করতে হবে না। তবে বয়স্কদের ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র ও অপ্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে জন্মনিবন্ধন সনদ দাখিল বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

আবেদনপত্র জমা দেওয়ার সময় ই-পাসপোর্টের জন্য ডেমোগ্রাফিক তথ্য, ১০ আঙুলের ছাপ, চোখের কর্নিয়ার ছবি ও ডিজিটাল সই সংগ্রহ করবে পাসপোর্ট অফিস। এসব তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় ডাটা সেন্টার ও ডিজ্যাস্টার রিকভারি সেন্টারের সার্ভারে সংরক্ষণ করা হবে। পাশাপাশি পাসপোর্টের আবেদনকারীদের পাসপোর্ট দেওয়ার জন্য পার্সোনালাইজেশন সেন্টারে পাসপোর্ট প্রিন্টিংয়ের পর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস ও দূতাবাসগুলোয় পাসপোর্ট বিতরণ করা হবে। সব তথ্য চিপে যুক্ত থাকবে। ইমিগ্রেশন পুলিশ বিশেষ যন্ত্রের সামনে পাসপোর্টের পাতাটি ধরতেই সব তথ্য বেরিয়ে আসবে।

কত টাকা ও কত দিনে হাতে পাবো ই-পাসপোর্ট?

নিম্নোক্ত হারে পাসপোর্ট ফি প্রযোজ্য হবে (ভ্যাটসহ) :
৫ বছর মেয়াদী ৪৮ পাতার পাসপোর্ট বইঃ
সাধারণ (২১ কর্মদিবস), ৪০২৫/- টাকা
জরুরী (১০ কর্মদিবস) ৬৩২৫/- টাকা
অতি-জরুরী (২ কর্মদিবস) ৮৬২৫/- টাকা

১০ বছর মেয়াদী ৪৮ পাতার পাসপোর্ট বইঃ
সাধারণ (২১ কর্মদিবস), ৫,৭৫০/- টাকা
জরুরী (১০ কর্মদিবস) ৮,০৫০/- টাকা
অতি-জরুরী (২ কর্মদিবস) ১০,৩৫০/- টাকা

৫ বছর মেয়াদী ৬৪ পাতার পাসপোর্ট বইঃ
সাধারণ (২১ কর্মদিবস), ৬৩২৫/- টাকা
জরুরী (১০ কর্মদিবস) ৮৬২৫/- টাকা
অতি-জরুরী (২ কর্মদিবস) ১২০৭৫/- টাকা

১০ বছর মেয়াদী ৬৪ পাতার পাসপোর্ট বইঃ
সাধারণ (২১ কর্মদিবস), ৮,০৫০/- টাকা
জরুরী (১০ কর্মদিবস) ১০,৩৫০/- টাকা
অতি-জরুরী (২ কর্মদিবস) ১৩,৮০০/- টাকা

তবে পুরনো অথবা মেয়াদোত্তীর্ণ পাসপোর্ট রি-ইস্যু করার ক্ষেত্রে অতি জরুরি পাসপোর্ট দু’দিনে, জরুরি পাসপোর্ট তিন দিনে ও সাধারণ পাসপোর্ট সাত দিনের মধ্যে পাওয়া যাবে।
উল্লেখ্য যে, ছবিতে বর্ণিত টাকার পরিমান ভ্যাট ছাড়া এবং উপরে বর্ণিত টাকার পরিমান ভ্যাটসহ।

সংগৃহীত

যা জন্ম থেকেই পাওয়া যায়, তার কদর থাকে না। শুকরিয়াও তাই আদায় করা হয় না। উল্টো সেরাটা না পাওয়ায়, স্বপ্নের জীবন না থাকায় আল্লাহকে দুষতে থাকে সবাই। বলে, "Why always me?"। তবে যারা নিজেদের রবকে চিনে, তারা নিজেদের অবস্থা যতই করুণ হোক না কেন, রবের শুকরিয়া আদায় করতে ভুলে না।
.
বিখ্যাত আবেদ মুহাম্মাদ ইবনে ওয়াসি'ই (রহ.)- এর পুরো শরীরে ঘা হয়েছিল। যার কারণে তার চেহারা খুবই কুৎসিত হয়ে গিয়েছিল। তার এক বন্ধু উনার এ চেহারা দেখে খুবই ভয় পেয়ে যায়। তাই তিনি তার সেই বন্ধুকে বলেছিলেন,
.
الحمد لله أنها ليست في لساني، ولا في طرف عيني
.
.
"সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্যে যে এটা আমার জিহ্বাতে কিংবা চোখের কোণে হয়নি।" (অর্থাৎ, রবের প্রশংসা করতে আর তাঁর ভয়ে কাঁদতে আমার কোনো কষ্ট হচ্ছে না।)
.
আরেক লোকের কথা। সে ছিল খুবই অসুস্থ। তার ওপর অন্ধ। চলাফেরা করার কোনো শক্তিই নেই। কিন্তু বারবার তার জবান থেকে উচ্চারিত হচ্ছিলো,
.
الحمد لله الذي فضلني على كثيرٍ من عباده
..
"প্রশংসা আল্লাহর যিনি আমাকে তাঁর বহু বান্দা থেকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছেন।"
তাই এক ব্যক্তি তাকে জিজ্ঞেস করলো, "আল্লাহ তোমার ওপর রহম করুন। কীভাবে আল্লাহ তোমাকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছেন?"
.
লোকটা তখন জবাব দিলো,
.
رزقني لساناً ذاكراً، وقلباً شاكراً، وجسداً على البلاء صابراً
.
"তিনি আমাকে একটি জিহ্বা দিয়েছেন যা তাঁকে স্মরণ করে। দিয়েছেন একটি হৃদয় যা তাঁর প্রশংসা করে। আরো দিয়েছেন একটি দেহ যা কষ্টে সবর করে।"
.
সবকিছু বাদ দিলেও আমরা যে জন্ম থেকেই নিয়ামত হিসেবে ইসলামকে পেয়েছি তা কয়জন পায়? এক সরল পথের সন্ধান করতে করতেই তো কত মানুষ সারাটা জীবন পার করে দেয়। বহু মানুষ পরিবার কর্তৃক বয়কট হয়। আমরা কখনো কি ভেবে দেখেছি আমরা কতোটা ভাগ্যবান? এমনকি মেসি-রোনালদো, আইন্সটাইন-নিউটন সহ বহু জগদ্বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গের চেয়েও বেশি ভাগ্যবান। টিভিতে যাদের দেখে আমরা ঈর্ষা করি তাদের চেয়ে অনেক বড়ো নিয়ামত আল্লাহ তা'আলা আমাদের দান করেছেন।
.
সে নিয়ামতের কথা স্মরণ করে উমার (রা.) বলতেন,
.
رَضِيتُ بِاللهِ رَبًّا، وَبِالْإِسْلَامِ دِينًا، وَبِمُحَمَّدٍ نَبِيًّا
.
"আমি সন্তুষ্ট আল্লাহকে রব হিসেবে পেয়ে। দ্বীন হিসেবে ইসলামকে পেয়ে। আর নবি হিসেবে মুহাম্মাদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম)-কে পেয়ে।"
.
আসলে যারা সেই নিয়ামতকে বুঝেছে তারা আমাদের মত খেয়াল খুশির জীবন বেছে নেয়নি। বেছে নিতে পারেনি। তারা নিজেদের কাজগুলোকে, কথাগুলোকে অন্য পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছে। দুনিয়ার সাথে সাথে গুছিয়েছে আখিরাতটাকেও। ইমাম শাফি'ই (রহ.) আল্লাহর কাছে তাই দু'আ করতেন,
.
يا رب رزقتني الإسلام ولم أسألك فأرزقنى الجنة وأنا أسألك
.
“হে আমার রব! তুমি আমাকে ইসলাম দিয়েছো! অথচ আমি তোমার কাছে কখনো তা চাইনি। তাই এখন আমাকে জান্নাত দান করো। আর আমি এটা তোমার কাছে চাচ্ছি।”
.
অর্থাৎ, তুমি অনেক দানশীল। না চাইতেই আমাকে ইসলাম দিয়েছো। আর এখন তো আমি নিজ থেকেই জান্নাত চাচ্ছি। তাই নিশ্চয়ই তুমি তা ফিরিয়ে দেবে না।
▂▂▂▂▂▂▂▂▂▂▂▂▂
.
লেখাঃ শিহাব আহমেদ তুহিন (আল্লাহ্‌ তাকে উত্তম প্রতিদান দান করুন!)

বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ১০টি পাওয়ার প্লান্ট(unit)-
.
১) হরিপুর কম্বাইন্ড সাইকেল, ইজিসিবি- ৪১২মেগাওয়াট।
২) ঘোড়াশাল CCPP, পিডিবি- ৩৬৫মেগাওয়াট।
৩) আশুগঞ্জ CCPP (South), APSCL- ৩৬০মেগাওয়াট।
৪) আশুগঞ্জ কম্বাইন্ড সাইকেল (উত্তর), APSCL- ৩৬০ মেগাওয়াট।
৫) ইউনাইটেড পাওয়ার, আনোয়ারা- ৩০০মেগাওয়াট।
৬) এপিআর HFO পাওয়ার প্লান্ট, কেরানীগঞ্জ- ৩০০মেগাওয়াট।
৭) সামিট পাওয়ার প্লান্ট, কড্ডা- ৩০০মেগাওয়াট।
৮) বিবিয়ানা গ্যাস টারবাইন কম্বাইন্ড সাইকেল, পিডিবি- ২৮৫মেগাওয়াট।
৯) সেম্বকর্প নর্থওয়েস্ট পাওয়ার কোম্পানী CCPP(GT), সিরাজগঞ্জ- ২৮২মেগাওয়াট।
১০) ভেড়ামারা CCPP(GT), NWPGCL- ২৭৮মেগাওয়াট।

#আগামীকাল_২৬_ডিসেম্বর_সারাবিশ্বে_সূর্যগ্রহণ-

ঢাকায় সূর্যগ্রহণটি শুরু হবে সকাল ৯টা ১মিনিট ১৬ সেকেন্ডে। ১০টা ২৮মিনিট ৯ সেকেন্ডের সময়ে সর্বোচ্চ সূর্যগ্রহণ হবে; ওই সময়েই সূর্য সবচেয়ে বেশি ঢাকা পড়বে চাঁদের আড়ালে এবং সূর্যকে একটি অগ্নিবলয়ের মতো দেখাবে ।সর্বোচ্চ দুপুর ১২টা ৮মিনিট ২৫ সেকেন্ড পর্যন্ত চলবে। তাই এ সময় সালাতে দাড়িয়ে যান।অন্যদেরও বলুন প্রার্থনায় নিমগ্ন হতে যাতে এর ফলে মানুষের কোন ক্ষতি কোথাও না হয়,আল্লাহ সবাইকে হেফাজত করুক,

আগামী ২৬ ডিসেম্বর সারাবিশ্ব এমন এক সূর্যগ্রহণ দেখবে যা শেষবার পৃথিবীর মানুষ দেখেছিল ১৭২ বছর আগে।এ সূর্য গ্রহণের সময় সূর্যের চারপাশে থাকবে এক আগুনের বলয়। বিজ্ঞানীরা যাকে বলেন ‘রিং অব ফায়ার’।তাই এ সূর্য গ্রহণ দেখার জন্য অনেকে প্রস্তুতি নিচ্ছে। কেউ কেউ বিশেষ গ্লাস কিনে রাখছে।মনে হচ্ছে যেন ঈদের সূর্য উঠবে।অধিকাংশ সময়েই আমাদের দেশের মানুষেরা অত্যন্ত আনন্দ আর কৌতুহল নিয়ে সূর্যগ্রহন এবং চন্দ্রগ্রহন প্রত্যক্ষ করে থাকে।

সূর্য ও চন্দ্র যখন গ্রহনের সময় হয় তখন আমাদের নবী (সা.) এর চেহারা ভয়ে বিবর্ণ হয়ে যেতো।তখন তিনি সাহাবীদের নিয়ে জামাতে নামাজ পড়তেন।কান্নাকাটি করতেন। আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করতেন।আরবীতে সূর্যগ্রহণকে ‘কুসূফ’ বলা হয়। আর সূর্যগ্রহণের নামাজকে ‘নামাজে কুসূফ’ বলা হয়। দশম হিজরীতে যখন পবিত্র মদীনায় সূর্যগ্রহণ হয়, ঘোষণা দিয়ে লোকদেরকে নামাজের জন্য সমবেত করেছিলেন। তারপর সম্ভবত তার জীবনের সর্বাধিক দীর্ঘ নামাজের জামাতের ইমামতি করেছিলেন। সেই নামাজের কিয়াম, রুকু, সিজদাহ মোটকথা, প্রত্যেকটি রুকন সাধারণ অভ্যাসের চেয়ে অনেক দীর্ঘ ছিলো।

অবিশ্বাসী বিজ্ঞানীরা প্রথমে যখন মহানবী (সা.) এর এ আমল সম্পর্কে জানতে পারলো, তখন তারা এটা নিয়ে বিদ্রুপ করলো (নাউযুবিল্লাহ)। তারা বললো, এ সময় এটা করার কি যৌক্তিকতা আছে? সূর্যগ্রহণের সময় চন্দ্রটি পৃথিবী ও সূর্যের মাঝখানে চলে আসে বলে সূর্যগ্রহণ হয়। ব্যাস এতটুকুই! এখানে কান্না কাটি করার কি আছে? মজার বিষয় হলো,বিংশ শতাব্দীর গোড়ায় যখন এ বিষয় নিয়ে গবেষণা শুরু হলো, তখন মহানবী (সা.) এই আমলের তাৎপর্য বেরিয়ে আসলো।

আধুনিক সৌর বিজ্ঞানীদের মতে, মঙ্গল ও বৃহস্পতি গ্রহ দু’টি কক্ষপথের মধ্যবলয়ে রয়েছে এস্টিরয়ে(Asteroid), মিটিওরিট (Meteorite) ও উল্কাপিন্ড প্রভৃতি ভাসমান পাথরের এক সুবিশাল বেল্ট, এগুলোকে এককথায় গ্রহানুপুঞ্জ বলা হয়। গ্রহানুপুঞ্জের এইবেল্ট (Belt) আবিষ্কৃত হয় ১৮০১ সালে।এক একটা ঝুলন্ত পাথরের ব্যাস ১২০ মাইল থেকে ৪৫০ মাইল।বিজ্ঞানীরা আজ পাথরের এই ঝুলন্ত বেল্ট নিয়ে শঙ্কিত।কখন জানি এ বেল্ট থেকে কোন পাথর নিক্ষিপ্ত হয়ে পৃথিবীর বুকে আঘাত হানে, যা পৃথিবীর জন্য ধ্বংসের কারণ হয় কিনা? গ্রহানুপুঞ্জের পাথর খন্ডগুলোর মাঝে সংঘর্ষের ফলে অনেক ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পাথরখন্ড প্রতিনিয়তই পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসে। কিন্তু সেগুলো পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে এসে জ্বলে ভস্ম হয়ে যায়। কিন্তু বৃহদাকার পাথর খন্ডগুলো যদি পৃথিবীতে আঘাত করে তাহলে কি হবে? প্রায় ৬৫ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীতে এমনই একটি পাথর আঘাত হেনেছিলো। এতে ডাইনোসরসহ পৃথিবীর তাবৎ উদ্ভিদ লতা গুল্ম সব ধ্বংস হয়ে গিয়েছিলো। আপনজনের (Arizon) এ যে উল্কাপিন্ড এসে পড়েছিলো তার কারণে পৃথিবীতে যে গর্ত হয়েছিলো তার গভীরতা ৬০০ ফুট এবং প্রস্থ ৩৮০০ ফুট। বিজ্ঞানীরা বলেন, সূর্য অথবা চন্দ্রগ্রহণের সময় ঝুলন্ত পাথরগুলো পৃথিবীতে ছুটে এসে আঘাত হানার আশংকা বেশী থাকে। কারণ হচ্ছে,এসময় সূর্য,চন্দ্র ও পৃথিবী একই সমান্তরালে,একই অক্ষ বরাবর থাকে ।ফলে তিনটির মধ্যাকর্ষণ শক্তি একত্রিত হয়ে ত্রিশক্তিতে রুপান্তরিত হয়। এমনি মুহূর্তে যদি কোন পাথর বেল্ট থেকে নিক্ষিপ্ত হয় তখন এই ত্রিশক্তির আকর্ষণের ফলে সেই পাথর প্রচন্ড শক্তিতে, প্রবল বেগে পৃথিবীর দিকে আসবে,এ প্রচন্ড শক্তি নিয়ে আসা পাথরটিকে প্রতিহত করা তখন পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের পক্ষে অসম্ভব হয়ে দাড়াবে। ফলে পৃথিবীর একমাত্র পরিণতি হবে ধ্বংস।একজন বিবেকবান মানুষ যদি মহাশূন্যের এ তত্ব জানে, তাহলে তার শঙ্কিত হবারই কথা।

এই দৃষ্টিকোন থেকে সূর্য বা চন্দ্রগ্রহণের সময় মহানবী (সা.) এর সেজদারত হওয়া এবং সৃষ্টিকূলের জন্য পানাহ চাওয়ার মধ্যে আমরা একটি নিখুঁত বাস্তবতার সম্পর্ক খুঁজে পাই। মহানবী (সা.) এর এ আমলটি ছিলো যুক্তিসঙ্গত ও একান্ত বিজ্ঞানসম্মত। তাই এটিকে উৎসব না বানিয়ে আল্লাহকে ভয় করুন।সালাত আদায় করুন।

*** এক নজরে ফেনী জেলা***
০১. জেলার নাম ঃ ফেনী
০২. জেলার শ্রেণী ঃ বি শ্রেণী
০৩. আয়তন ঃ ৯২৮.৩৪ বর্গ কিঃ মিঃ
০৪. উপজেলার সংখ্যা ঃ ০৬ টি
ফেনী সদর, সোনাগাজী, দাগনভূঞা, ছাগলনাইয়া, পরশুরাম ও ফুলগাজী
০৫. পৌরসভার সংখ্যা ঃ ০৫টি
ফেনী সদর, সোনাগাজী, দাগনভূঞা, ছাগলনাইয়া, পরশুরাম
০৬. ইউনিয়নের সংখ্যা ঃ ৪৩ টি
০৭. গ্রামের সংখ্যা ঃ ৫৭১ টি
০৮. মৌজার সংখ্যা ঃ ৫৫২ টি
জনসংখ্যা সংক্রান্ত তথ্যাবলী
(আদমসূমারী ২০০১ অনুসারে)
০১. মোট জনসংখ্যা ঃ ১২,০৫,৯৮০ জন
০২. মোট পুরুষ ঃ ৫,৯৩,২৪০ জন
০৩. মোট মহিলা ঃ ৬,১২,৭৪০ জন
শিক্ষা সংক্রান্ত তথ্যাবলী
০১. মোট শিক্ষার হার ঃ ৬৪%
০২. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ঃ
ক. প্রাথমিক বিদ্যালয় - ৫২৮টি
খ. নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় - ১৯টি
গ. মাধ্যমিক বিদ্যালয় - ১৫৫টি
ঘ. উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ- ১০টি
ঙ. ডিগ্রি কলেজ- ১১টি
চ. বিভিন্ন শ্রেণীর মাদ্রাসা- ৯৭টি
ছ. পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট- ০১টি
জ. পি.টি.আই- ০১টি
ঝ. টিচার্স ট্রেনিং কলেজ- ০১টি
ঞ. গালর্স ক্যাডেট কলেজ- ০১টি
ট. কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট- ০১টি
ঠ. টেকনিক্যাল স্কুল- ০১টি
কৃষি সংক্রান্ত তথ্যাবলী
০১. মোট আবাদী জমি ঃ ৭৫,৯২২ হেঃ
০২. নীট আবাদী জমি ঃ ৭৫,০৫৪ হেঃ
০৩. জলাভূমি ঃ ৬,০১০ হেঃ
০৪. বনভূমি ঃ ১,৬৬৫ হেঃ
০৫. বেসরকারী নার্সারী ঃ ১৪৪ টি
০৬. উল্লেখ যোগ্য ফসল ঃ ধান, সরিষা, গোল আলু, মিষ্টি আলু,
ডাল, মরিচ, ও সবজি
নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্যাবলীঃ
০১. মোট নির্বাচনী এলাকা ঃ ০৩ টি
ফেনী- ১, নির্বাচনী এলাকা- ২৬৫
(পরশুরাম, ফুলগাজী ও ছাগলনাইয়া উপজেলা)
ফেনী- ২, নির্বাচনী এলাকা- ২৬৬
(ফেনী সদর)
ফেনী- ৩, নির্বাচনী এলাকা- ২৬৭
(সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলা)
০২. মোট ভোটার সংখ্যা(২০০৮ সাল)ঃ ৭,৬৫,৬৫৫ জন
(পুরুষ- ৩,৫৩,৪০৭ জন,
মহিলা- ৪,১২,২৪৮ জন )
০৩. মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যাঃ ক) ফেনী-১ (নির্বাচনী এলাকা- ২৬৫) ঃ ৯৮ টি
খ) ফেনী- ২ (নির্বাচনী এলাকা- ২৬৬) ঃ ১১৮টি
গ) ফেনী- ৩ (নির্বাচনী এলাকা- ২৬৭) ঃ ১২১টি
সর্বমোট ঃ ৩৩৭ টি
জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা
০১. পাকা রাস্তা ঃ ১০৪৪.৮৫ কিঃ মিঃ
০২. আধা পাকা রাস্তা ঃ ৮৭.৯৬ কিঃ মিঃ
০৩. কাঁচা রাস্তা ঃ ২১৩২.৬৯ কিঃ মিঃ
০৪. রেলপথ ঃ ২৬ কিঃ মিঃ
শিল্প ও বাণিজ্য
০১. শিল্প নগরীর সংখ্যা ঃ ০২ টি
০২. ভারী শিল্পের সংখ্যা ঃ ০৫ টি (কাঁচ ০২, স্টীল ০১, টেক্সটাইল ০২ টি)
০৩. মাঝারি শিল্পের সংখ্যাঃ ০৭ টি (বিস্কুট, তোয়ালে, লুব্রিকেন্ট ইত্যাদি)
০৪. ক্ষুদ্র শিল্পের সংখ্যা ঃ ৮২৬ টি
০৫. কুটির শিল্পের সংখ্যা ঃ ৯,৫৩০ টি
আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি
আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক।
দর্শনীয় স্থান সমূহ
০১. সোনাগাজী মুহুরী সেচ প্রকল্পঃ ১৯৭৭ সালে সোনাগাজী উপজেলায় মুহুরী নদীর মোহনায় সেচ সুবিধার লক্ষ্যে এ প্রকল্প চালু করা হয়। এর ফলে ২০,১৯৪ হেক্টর এলাকায় সেচ সুবিধা এবং ২৭,১২৫ হেক্টর এলাকা সম্পুরক সেচ সুবিধার আওতায় আসে।
০২. শিলুয়ার শীল পাথরঃ ছাগলনাইয়া উপজেলায় অবস্থিত প্রাচীন শীলা মুর্তি।
০৩. রাজাঝীর দীঘিঃ ফেনী শহরে অবস্থিত ত্রিপুরা মহারাজের প্রভাবশালী একজন রাজার কন্যার অন্ধত্ব দুর করার মানসে এ দীঘি খনন করা হয় বলে কথিত। এ দীঘির আয়তন ১০.৩২ একর।
০৪. বিজয় সিংহ দীঘিঃ বাংলার বিখ্যাত সেন বংশের প্রতিষ্ঠাতা বিজয় সেনের অমর কীর্তি এ বিজয় সিংহ দীঘি । এ দীঘি ফেনী শহরের পশ্চিম পাশে অবস্থিত। এ দীঘির আয়তন ৩৬.০০ একর।
০৫. শমসের গাজীর দীঘিঃ পরশুরাম উপজেলায় অবস্থিত এ দীঘির আয়তন ১০.০৬ একর।
০৬. কৈয়ারা দীঘিঃ শমসের গাজী তার মাতা কৈয়ারা বেগমের নামে এ দীঘি খনন করেন। এ দীঘি ছাগলনাইয়া উপজেলায় অবস্থিত।
০৭. জগন্নাথ কালী মন্দিরঃ ছাগলনাইয়া উপজেলা অবস্থিত। শমসের গাজী তার বাল্যকালের লালন কর্তা জগন্নাথ সেনের স্মৃতিতে এ মন্দির ও কালী মুর্তি নির্মাণ করেন।
০১. জেলার নাম ঃ ফেনী
০২. জেলার শ্রেণী ঃ বি শ্রেণী
০৩. আয়তন ঃ ৯২৮.৩৪ বর্গ কিঃ মিঃ
০৪. উপজেলার সংখ্যা ঃ ০৬ টি
ফেনী সদর, সোনাগাজী, দাগনভূঞা, ছাগলনাইয়া, পরশুরাম ও ফুলগাজী
০৫. পৌরসভার সংখ্যা ঃ ০৫টি
ফেনী সদর, সোনাগাজী, দাগনভূঞা, ছাগলনাইয়া, পরশুরাম
০৬. ইউনিয়নের সংখ্যা ঃ ৪৩ টি
০৭. গ্রামের সংখ্যা ঃ ৫৭১ টি
০৮. মৌজার সংখ্যা ঃ ৫৫২ টি
জনসংখ্যা সংক্রান্ত তথ্যাবলী
(আদমসূমারী ২০০১ অনুসারে)
০১. মোট জনসংখ্যা ঃ ১২,০৫,৯৮০ জন
০২. মোট পুরুষ ঃ ৫,৯৩,২৪০ জন
০৩. মোট মহিলা ঃ ৬,১২,৭৪০ জন
শিক্ষা সংক্রান্ত তথ্যাবলী
০১. মোট শিক্ষার হার ঃ ৬৪%
০২. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ঃ
ক. প্রাথমিক বিদ্যালয় - ৫২৮টি
খ. নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় - ১৯টি
গ. মাধ্যমিক বিদ্যালয় - ১৫৫টি
ঘ. উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ- ১০টি
ঙ. ডিগ্রি কলেজ- ১১টি
চ. বিভিন্ন শ্রেণীর মাদ্রাসা- ৯৭টি
ছ. পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট- ০১টি
জ. পি.টি.আই- ০১টি
ঝ. টিচার্স ট্রেনিং কলেজ- ০১টি
ঞ. গালর্স ক্যাডেট কলেজ- ০১টি
ট. কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট- ০১টি
ঠ. টেকনিক্যাল স্কুল- ০১টি
কৃষি সংক্রান্ত তথ্যাবলী
০১. মোট আবাদী জমি ঃ ৭৫,৯২২ হেঃ
০২. নীট আবাদী জমি ঃ ৭৫,০৫৪ হেঃ
০৩. জলাভূমি ঃ ৬,০১০ হেঃ
০৪. বনভূমি ঃ ১,৬৬৫ হেঃ
০৫. বেসরকারী নার্সারী ঃ ১৪৪ টি
০৬. উল্লেখ যোগ্য ফসল ঃ ধান, সরিষা, গোল আলু, মিষ্টি আলু,
ডাল, মরিচ, ও সবজি
নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্যাবলীঃ
০১. মোট নির্বাচনী এলাকা ঃ ০৩ টি
ফেনী- ১, নির্বাচনী এলাকা- ২৬৫
(পরশুরাম, ফুলগাজী ও ছাগলনাইয়া উপজেলা)
ফেনী- ২, নির্বাচনী এলাকা- ২৬৬
(ফেনী সদর)
ফেনী- ৩, নির্বাচনী এলাকা- ২৬৭
(সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলা)
০২. মোট ভোটার সংখ্যা(২০০৮ সাল)ঃ ৭,৬৫,৬৫৫ জন
(পুরুষ- ৩,৫৩,৪০৭ জন,
মহিলা- ৪,১২,২৪৮ জন )
০৩. মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যাঃ ক) ফেনী-১ (নির্বাচনী এলাকা- ২৬৫) ঃ ৯৮ টি
খ) ফেনী- ২ (নির্বাচনী এলাকা- ২৬৬) ঃ ১১৮টি
গ) ফেনী- ৩ (নির্বাচনী এলাকা- ২৬৭) ঃ ১২১টি
সর্বমোট ঃ ৩৩৭ টি
জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা
০১. পাকা রাস্তা ঃ ১০৪৪.৮৫ কিঃ মিঃ
০২. আধা পাকা রাস্তা ঃ ৮৭.৯৬ কিঃ মিঃ
০৩. কাঁচা রাস্তা ঃ ২১৩২.৬৯ কিঃ মিঃ
০৪. রেলপথ ঃ ২৬ কিঃ মিঃ
শিল্প ও বাণিজ্য
০১. শিল্প নগরীর সংখ্যা ঃ ০২ টি
০২. ভারী শিল্পের সংখ্যা ঃ ০৫ টি (কাঁচ ০২, স্টীল ০১, টেক্সটাইল ০২ টি)
০৩. মাঝারি শিল্পের সংখ্যাঃ ০৭ টি (বিস্কুট, তোয়ালে, লুব্রিকেন্ট ইত্যাদি)
০৪. ক্ষুদ্র শিল্পের সংখ্যা ঃ ৮২৬ টি
০৫. কুটির শিল্পের সংখ্যা ঃ ৯,৫৩০ টি
আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি
আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক।
দর্শনীয় স্থান সমূহ
০১. সোনাগাজী মুহুরী সেচ প্রকল্পঃ ১৯৭৭ সালে সোনাগাজী উপজেলায় মুহুরী নদীর মোহনায় সেচ সুবিধার লক্ষ্যে এ প্রকল্প চালু করা হয়। এর ফলে ২০,১৯৪ হেক্টর এলাকায় সেচ সুবিধা এবং ২৭,১২৫ হেক্টর এলাকা সম্পুরক সেচ সুবিধার আওতায় আসে।
০২. শিলুয়ার শীল পাথরঃ ছাগলনাইয়া উপজেলায় অবস্থিত প্রাচীন শীলা মুর্তি।
০৩. রাজাঝীর দীঘিঃ ফেনী শহরে অবস্থিত ত্রিপুরা মহারাজের প্রভাবশালী একজন রাজার কন্যার অন্ধত্ব দুর করার মানসে এ দীঘি খনন করা হয় বলে কথিত। এ দীঘির আয়তন ১০.৩২ একর।
০৪. বিজয় সিংহ দীঘিঃ বাংলার বিখ্যাত সেন বংশের প্রতিষ্ঠাতা বিজয় সেনের অমর কীর্তি এ বিজয় সিংহ দীঘি । এ দীঘি ফেনী শহরের পশ্চিম পাশে অবস্থিত। এ দীঘির আয়তন ৩৬.০০ একর।
০৫. শমসের গাজীর দীঘিঃ পরশুরাম উপজেলায় অবস্থিত এ দীঘির আয়তন ১০.০৬ একর।
০৬. কৈয়ারা দীঘিঃ শমসের গাজী তার মাতা কৈয়ারা বেগমের নামে এ দীঘি খনন করেন। এ দীঘি ছাগলনাইয়া উপজেলায় অবস্থিত।
০৭. জগন্নাথ কালী মন্দিরঃ ছাগলনাইয়া উপজেলা অবস্থিত। শমসের গাজী তার বাল্যকালের লালন কর্তা জগন্নাথ সেনের স্মৃতিতে এ মন্দির ও কালী মুর্তি নির্মাণ করেন।
কপিরাইট

#ক্যাপসিকাম খেলে কী হয়?

১০০ গ্রামের একটি ক্যাপসিকামে রয়েছে ৮৬০ মিলিগ্রাম প্রোটিন, ৪ দশমিক ৬ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ১ দশমিক ৭০ মিলিগ্রাম চর্বি, ৮০ মিলিগ্রাম ভিটামিন-সি, ৩৭০ আইইউ ভিটামিন-এ। এ ছাড়া সামান্য পরিমাণ ভিটামিন-ই, ভিটামিন-কে, ভিটামিন-বি৬, থায়ামিন, লেবোফ্লেবিস ও ফলিক এসিড পাওয়া যায়।

খনিজ উপাদানের মধ্যে ১০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, আয়রন ৩৮০ মিলিগ্রাম, পটাশিয়াম ১৭৫ মিলিগ্রাম ও ফসফরাস ২০ মিলিগ্রাম পাওয়া যায়। এ ছাড়া জিংক, কপার, ম্যাঙ্গানিজ ও ফ্লোরাইড সামান্য পরিমাণে পাওয়া যায়।

যেসব কাজ করে-

# চামড়া পরিষ্কার রাখতে ক্যাপসিকাম বেশ উপকারী, এটি চামড়ার র‍্যাশ হওয়া ও ব্রণ প্রতিরোধ করে।

# এর ক্যাপসাইসিনস নামক উপাদান ডিএনএর সঙ্গে যুক্ত হয়ে ক্যানসার সৃষ্টিকারী উপাদানের সংযুক্ত হওয়াতে বাধা দেয়। এভাবে এটি ক্যানসার প্রতিরোধে কাজ করে।

# ক্যাপসিকাম যেকোনো ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়। মাইগ্রেন, সাইনাস, ইনফেকশন, দাঁতে ব্যথা, অস্টিওআর্থ্রাইটিস ইত্যাদি ব্যথা দূর করতে কাজ করে।

# ক্যাপসিকাম দেহের বাড়তি ক্যালরি পূরণে কাজ করে। ফলে উচ্চ চর্বি থেকে যে ওজন বৃদ্ধি পায়, তা হ্রাস করে।

# সি সিকনেস (সমুদ্রে যাওয়ার কারণে তৈরি অসুস্থতা), ম্যালেরিয়া, জ্বর ইত্যাদি রোধে ক্যাপসিকাম বেশ কার্যকর।

# এতে অ্যালকালোয়েড, ফ্লেবোনয়েড, ক্যানিন ইত্যাদি পাওয়া যায়। অ্যালকালোয়েড অ্যান্টি-ইনফ্লামেটোরি ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। ক্যানিন আন্ত্রিক রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়।

# এর ভিটামিন-সি মস্তিষ্কের টিস্যুকে পুনরুজ্জীবিত করে; দেহের হাড়কে সুগঠিত করে। এটি বার্ধক্যজনিত অন্ধত্ব প্রতিরোধ করে।

# লাইকোপিন প্রোস্টেট #ক্যানসার, সার্ভিক্যাল ক্যানসার ও ওভারিয়ান ক্যানসার প্রতিরোধে কাজ করে।

আপনি ইংরেজী তে যতই দুর্বল হোন না কেন, আজকের পোস্ট টি তে দেওয়া 40 টি BASIC STRUCTURE খুব ভাল্ভাবে আয়ত্ত করতে পারলে আপনার SPOKEN ENGLISH & ENGLISH এর ভয় অনেকাংশে চলে যাবে।পোস্টে প্রথম অংশে Rules এবং ২য় অংশে সার্বিক আলোচনা করা হয়েছে।
★rules.I am having a hard time+ ing যুক্ত verb(কোন কিছু করতে সমস্যা হচ্ছে)
I am having a hard time understanding my friends ( আমার বন্ধুদের বুঝতে আমার সমস্যা হচ্ছে(
I am having a hard time downloading songs( আমার গান গুলি ডাউনলোড করতে সমস্যা হচ্ছে)
I am having a hard time answering your questions. ( তোমার প্রশ্নগুলির উত্তর দিতে আমার সমস্যা হচ্ছে)।
Similarly, I am having a hard time understanding the rules, I am having a hard time browsing internet,.........
★ RULE:
There is something wrong with + noun. ( কোন কিছুতে সমস্যা হয়েছে)
1. There is something wrong with my computer. আমার কম্পিউটার এ সমস্যা হয়েছে।
2. There is something wrong with my mobile.
আমার মোবাইলে সমস্যা হয়েছে।
3. There is something wrong with my relationship. আমার রিলেশনশিপে সমস্যা হয়েছে।
4. There is something wrong with my certificate. আমার সার্টিফিকেট এ সমস্যা হয়েছে।
5.There is something wrong with my Television. আমার টেলিভিশন এ সমস্যা হয়েছে।
★Rules , I have decided to+ verb...(কোন কিছুর সিদ্ধান্ত নিয়েছি)। যেমন,
1.I have decided to learn English ( আমি ইংরেজী শেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি)
2. I have decided to change myself,আমি নিজেকে পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
3.I have decided to work hard আমি কঠোর কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
4.I have decided to help the poor. আমি গরীবদের কে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
5.I have decided to change my bad habits, আমি আমার খারাপ অভ্যাসগুলি পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
★Rules , I am trying to + verb (কোন কিছু করার চেষ্টা করতেছি) যেমন,
1. I am trying to learn English ( আমি ইংরেজী শিখতে চেষ্টা করতেছি)
2. I am trying to do something আমি কিছু করার চেষ্টা করতেছি।
3. I am trying to help the street children( আমি পথশিশু দের সাহায্য করতে চেষ্টা করতেছি)
4. I am trying to clean my room আমি আমার ঘর পরিষ্কার করার চেষ্টা করতেছি।
5.I am trying to motivate him.আমি তাকে অনুপ্রাণিত করার চেষ্টা করতেছি।
★RULES.I have heard that +.....আমি শুনেছি যে.....
I have heard that you learn English আমি শুনেছি তুমি ইংরেজী শিখ।
I have heard that Search English group is very useful for learners আমি শুনেছি সার্চ ইংলিশ গ্রুপ শিক্ষার্থী দের জন্য উপকারী।
I have heard that He is very talented আমি শুনেছি সে খুব মেধাবী
I have heard that you work hard আমি শুনেছি তুমি কঠোর কাজ কর
I have heard that you study well আমি শুনেছি তুমি ভালভাবে পড়াশুনা কর
I have heard that you like traditional foods আমি শুনেছি তুমি traditional খাবার পছন্দ কর।
I have heard that you waste your time আমি শুনেছি তুমি তোমার সময় অপচয় কর।
★Rules , I promise not to + verb(যখন কোন কিছু না করার প্রতিজ্ঞা করা হয়) যেমন,
1. I promise not to criticise others( আমি প্রতিজ্ঞা করতেছি কারও সমালোচনা না করার)
2. I promise not to procrastinate ( আমি প্রতিজ্ঞা করতেছি কোন কাজে গড়িমসি না করার)
3. I promise not to hurt your feelings(আমি প্রতিজ্ঞা করতেছি তোমার feelings এ আঘাত না করার।
একটা করে Rule আয়ত্ত করে কমপক্ষে ৫ টা করে বাক্য কমেন্ট করার চেষ্টা করুন।
★Rules , I promise to + verb. ( কোন কিছু করার প্রতিজ্ঞা করা)
1. I promise to learn English ( আমি ইংরেজী শেখার প্রতিজ্ঞা করতেছি)
2. I promise to help the poor( আমি গরীবদের কে সাহাজ্য করার প্রতিজ্ঞা করতেছি)
3. I promise to avoid procrastination( আমি কাজে গড়িমসি পরিত্যাগ করার প্রতিজ্ঞা করতেছি)
★Rules , It takes + time + to + verb ( কোন কিছু করতে কত সময় লাগে..)
1. it takes 2/3 months to learn English. ( ইংরেজী শিখতে ২/৩ মাস সময় লাগে)
2. it takes 30 minutes to go to the market( বাজারে যেতে ৩০ মিনিট সময় লাগে)
3. it takes 1 hour to solve the problem (সমস্যাটার সমাধান করতে ১ ঘন্টা সময় লাগে).
★Rules,There is no need to + verb( কোন কিছু করার দরকার নাই)
There is no need to do the work( কাজটি করার কোন দরকার নাই)
There is no need to disturb him. তাকে বিরক্ত করার কোন দরকার নাই
There is no need to neglect himতাকে অবহেলা করার দরকার নাই
There is no need to criticise সমালোচনা করার কোন দরকার নাই
There is no need to rush off তাড়াহুড়ো করার দরকার নাই
There is no need to discuss আলোচনা করার কোন দরকার নাই।
There is no need to procrastinate কাজে গড়িমসি করার কোন দরকার নাই।
★rules,Do you like + ing যুক্ত verb ( কোন কিছু করতে পছন্দ কর)
Do you like playing cricket ( তুমি কি ক্রিকেট খেলতে পছন্দ কর)
Do you like browsing Internet ( তুমি কি ইন্টারনেট চালাইতে পছন্দ কর)
Do you like watching Tv ( তুমি কি টিভি দেখতে ভালবাস)
Do you like practicing English ( তুমি কি ইংরেজী চর্চা করতে পছন্দ কর)
Do you like singing ( তুমি কি গান গাইতে পছন্দ কর)
Do you like studying তুমি কি পড়াশুনা করতে পছন্দ কর
Do you like hanging out with friends তুমি কি বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে পছন্দ কর
★rules,I think I should + verb( আমি মনে করি আমার কোন কিছু করা উচিৎ....)
I think I should study আমি মনে করি আমার পড়াশোনা করা উচিত
I think I should learn English আমি মনে করি আমার ইংরেজী শেখা উচিত
I think I should practice regularly আমি মনে করি আমার নিয়মিত চর্চা করা উচিত
I think I should go there আমি মনে করি আমার সেখানে যাওয়া উচিত
I think I should write আমি মনে করি আমার লেখা উচিৎ.
# # RULE
it is my turn to + verb( এবার আমার পালা কোন কিছু করার)
OR
it is your turn to + verb( এবার তোমার পালা কোন কিছু করার)
it is my turn to work hard এবার আমার পালা কঠোর কাজ করার
it is my turn to help you এবার আমার পালা তোমাকে সাহায্য করার
it is my turn to post regularly এবার আমার পালা নিয়মিত পোষ্ট দেওয়ার
it is my turn to teach English এবার আমার পালা ইংরেজী শেখানোর
it is my turn to provide iinformation এবার আমার পালা তথ্য সরবরাহ করার
it is my turn to practice English এবার আমার পালা ইংরেজী চর্চা করার
it is your turn to read the post এবার তোমার পালা পোস্ট পড়ার
it is your turn to think এবার তোমার পালা চিন্তা করার
it is your turn to practice English এবার তোমার পালা ইংরেজী চর্চা করার
it is your turn to comment এবার তোমার পালা কমেন্ট করার
##RULE
## # I was busy + ing যুক্ত verb ( কোন কিছু নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম)
I was busy learning Englishআমি ইংরেজী শেখা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy speaking English আমি ইংরেজী বলা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy listening English আমি ইংরেজী শোনা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy reading English আমি ইংরেজী পড়া নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy playing cricket আমি ক্রিকেট খেলা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy watching TVআমি টিভি দেখা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy accomplishing my taskআমি আমার কাজ শেষ করা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy studying for my exam আমি আমার পরীহ্মার জন্য পড়াশুনা করা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy practicing English আমি ইংরেজী চর্চা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম
I was busy doing the work আমি কাজটি করা নিয়ে খুব ব্যস্ত ছিলাম
I was busy taking the advantage আমি সুবিধাটা নেওয়ার ব্যাপারে খুব ব্যস্ত ছিলাম
##RULE
# # Rules 7, I am trying to + verb (কোন কিছু করার চেষ্টা করতেছি) যেমন,
1. I am trying to learn English ( আমি ইংরেজী শিখতে চেষ্টা করতেছি)
2. I am trying to do something আমি কিছু করার চেষ্টা করতেছি।
3. I am trying to help the street children( আমি পথশিশু দের সাহায্য করতে চেষ্টা করতেছি)
4. I am trying to clean my room আমি আমার ঘর পরিষ্কার করার চেষ্টা করতেছি।
5.I am trying to motivate him.আমি তাকে অনুপ্রাণিত করার চেষ্টা করতেছি
##Rules, it is very hard for me to +verb ( কারো পক্ষে কোন কিছু করা কঠিন)
1.it is very hard for me to help you.আমার পক্ষে তোমাকে সাহাজ্য করা কঠিন
2.it is very hard for me to continue my study আমার পক্ষে আমার study চালানো খুবই কঠিন
3. it is very hard for me to do the workআমার পক্ষে কাজটি করা খুবই কঠিন
##Rules, I am sorry to + verb কোন কিছু করার জন্য দুক্ষিত
1. I am sorry to disturb you তোমাকে বিরক্ত করার জন্য দুক্ষিত
2. I am sorry to kill your time তোমার সময় নষ্ট করার জন্য আমি দুক্ষিত
3. I am sorry to neglect you তোমাকে অবহেলা করার জন্য আমি দুক্ষিত।
##Rules, I am here to + verb ( আমি এখানে এসেছি কোন কিছু করতে)
1. I am here to learn English (আমি এখানে এসেছি ইংরেজি শিখতে
2. I am here to solve your problems আমি এখানে এসেছি তোমার সমস্যার সমাধান করতে
3. I am here to help you আমি এখানে এসেছি তোমাকে সাহাজ্য করতে
##RULE
## Spoken English এ Question making খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রতিদিন কিছুসময় Question making practice করা উচিৎ।
Could you please tell me where the nearest bank is?
Could you please tell me where the fitness center is?
Could you please tell me where your office is?
Could you please tell me where the post office is?
Could you please tell me where your university is?
Could you please tell me where the nearest mosque is?
## Spoken English এ এই ধরনের Question এর ব্যবহার প্রচুর। এটা প্রয়োগ করে বেশি বেশি কথা বলুন এবং কমেন্ট করুন।
# # Native English Speakers দের মত Confidently কথা বলতে কিছু সহজ জিনিস শিখতে পারেন।
# # HAVE ( এর পরিবর্তে HAVE GOTব্যবহার করুন। Have এবং Have Got এর অর্থ "আছে"।
I have got a carআমার একটি carআছে।
I have got a pen আমার একটি কলম আছে।
I have got a book আমার একটি বই আছে।
I have got two cats আমার দুটি বিড়াল আছে।
# # Much , many, a lot of এর পরিবর্তে "a great deal of, a large number of " ব্যবহার করুন।
১. Many people are waiting for world cup(অনেক লোকজন world cup এর জন্য অপেক্ষা করতেছে)... এর পরিবর্তে বলুন "A large number of people are waiting for world cup"....( অনেক লোকজন world cup এর জন্য অপেক্ষা করতেছে)
2. I did a lot of work ( আমি প্রচুর কাজ করেছিলাম)এর পরিবর্তে বলতে পারেন I did a great deal of work(আমি প্রচুর কাজ করেছিলাম).
#### Very এর পরিবর্তে Fairly,quite,pretty ব্যবহার করুন।
যেমন
1.I am very surprised এর পরিবর্তে I am quite surprised.
2.I am very angry এর পরিবর্তে I am pretty angry
3. He is very good এর পরিবর্তে He is fairly good ব্যবহার করতে পারেন.
####### Have, many, a lot of, very দিয়ে বাক্যগুলি ও grammatically correct. কিন্তু Native Spekaers রা সাধারণত Spoken English এ
'Have' এর পরিবর্তে "Have Got" ব্যবহার করেন,
many,much, a lot of এর পরিবর্তে a great deal of, a large number of ব্যবহার করেন,
very এর পরিবর্তে fairly,pretty,quite ব্যবহার করেন।
### আপনি চাইলে এগুলি শিখে আপনার English কে আরও standard করতে পারেন। এই post টি উপকারী মনে হলে এগুলি প্রয়োগ করে comment করুন।
###Rules ভালভাবে আয়ত্ত করার পর যত বেশি এগুলি প্রয়োগ করে কথা বলা শুরু করবেন তত দ্রুত English এ fluent হবেন। শুধু Rules দিয়ে কোনদিন spoken English এ দক্ষ হওয়া যাবে না। সুতরাং আজ থেকেই English এ কথা বলা শুরু করে দিন।
২য় অংশ
###Rules
. Subject +verb(s/es) +.....( normal sense). যেমন: আমি যাই, আমি শিখি, আমি পড়ি, আমি হাটি......
1. I get up at 7.00 am.=আমি সকাল ৭টায় উঠি।
2.I freshen myself= আমি ফ্রেশ হই।
3.I brush (my) teeth= আমি (আমার) দাঁত মাঝি।
4. I get out from my reidence, আমি বাড়ি থেকে বাহির হই।
৫.I run slowly, আমি ধীরেধীরে দৌড়াই,
৬. I enjoy( myself) the natural beauty.আমি প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করি,
৭.I take regular exercise= আমি নিয়মিত ব্যায়াম করি
৮. I return my home, আমি আমমার বাড়ি ফিরে আসি
9. i wash (my) hands & face= আমি (আমার) হাত মুখ ধুই
১০.I wipe (my) hands & face= আমি (আমার) হাত মুখ মুছি।
11.I prepare myself for my prayer, আমি প্রার্থনার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করি
12. I make ablution, আমি অজু করি
13.I offer my prayer.= আমি নামাজ প
14.I take / have a bath/shower= আমি গোছল করি।
15. I stand before mirror, আমি আয়নার সামনে দাড়াই,
16. I use cosmetics, আমি প্রসাধনী ব্যবহার করি
17. I wear (my) dresses= আমি (আমার) কাপর পরি।
18. I get Ready for (my) university / college / office = আমি ইউনিভারসিটি,/কলেজ/অফিসের জন্য রেডী হই।
19. I take/ have (my) breakfast= আমি সকালের নাস্তা করি।
20. I go to my university/ office আমি ইউনিভারসিটি / অফিসে যাই,
21. I get into (the)bus/car/rickshaw= আমি গাড়িতে বা রিক্সায় উঠি।
22. I get down from the bus/car/ rickshaw আমি গারি/ রিকশা থেকে নামি
23. I reach to (the) university/office= আমি ইউনিভারসিটি/অফিসে গিয়ে পৌঁছাই
24. I start my work= আমি আমার কাজ শুরু করি
25. I look after (my) work= আমি (আমার) কাজ দেখাশুনা করি।
29. I speak with (my) friends = আমি (আমার) বন্ধুদের সাথে কথা বলি।
30. I work till 1.00 pm.= আমি ১টা পর্যন্ত কাজ করি।
31. I stop working, আমি করা বন্ধ করি
32. I take rest for some time.আমি কিছুহ্মনের জন্য বিশ্রাম নেই
33. I offer (my) johar prayer = আমি জোহরের নামাজ পরি।
34.I take/ have (my) lunch at 2 O’ Clock. = আমি দুটায় দুপুরের খাবার খাই।
35. I restart (my) work= আমি পুনরায় (আমার) কাজ শুরু করি.
36. I take/ have some snacks and tea= আমি চা নাস্তা খাই।
37. I accomplish my tasks, আমি আমার কাজ শেষ করি
38. I finish (my) work= আমি (আমার) কাজ শেষ করি।
39. I leave (my) university/office= আমি (আমার) ইউনিভারসিটি/ অফিস ত্যাগ করি।
40. I buy my essential commodities from the market, আমি বাজার থেকে কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস ক্রয় করি.
41. I hang out with my friends. আমি আমার বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেই।
42. I return my home at 9 p.m= আমি 9 টার সময় বাসায় ফিরি।
43. I change (my) dress= আমি (আমার) কাপর পাল্টাই।
44. I watch television,আমি টিভি দেখি।
45. I browse Internet, আমি ইন্টারনেট ব্যবহার করি
46. I take/ have (my) dinner/supper= আমি রাতের খাবার খাই।
47. I gossip/ hangout with (my) family members = আমি (আমার) পরিবারের সদস্যদের সাথে গল্প করি
48. I perform my prayer, আমি আমার নামাজ পড়ি।
49. I think about my career. আমি আমার ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তা করি,
50.I go to sleep at 11 O'clock sharp. = আমি রাতে ঠিক ১১ টায় ঘুমোতে যাই।
# # উপরের বাক্য গুলির সাথে, Then, next, after that, sometimes, finally, to+ verb word, ing যুক্ত verb যোগ করে ভাল ভাল বাক্য গঠন করা যাবে যেগুলি পরবর্তী লেসনে বিশদ্ ভাবে আলোচনা করা হবে। পরবর্তী লেসনে আরো ৫০ টি verb দেওয়া হবে।ইংরেজী তে যারা দুর্বল তারা verb গুলি তোতা পাখির মত মুখস্থ রাখুন।
# # এগুলি বুঝতে সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানান, আমি clearly explain করার try করবো।
##RULE
# # English এ বড় বড় বাক্য বলতে, বুঝতে ও লিখতে যারা ভয় পান তারা খুব ভাল করে আজকের পোস্ট টা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।
## # আগের ৫০ টি বাক্য কে আজকের সহজ Rules গুলি প্রয়োগ করে minimum প্রত্যেক টা বাক্যকে ১০ শব্দের চাইতে বড় করে লিখুন এবং বড় বড় বাক্য দিয়ে কমেন্ট করুন।
### RULES 3. To + verb word= verb এর সাথে "তে/র" থাকলে "To+ verb" ব্যবহার করতে হয়। যেমন
To do করতে/ করার,
To read পড়তে/ পড়ার,
To learn শিখতে/ শেখার,
To think চিন্তা করতে/ চিন্তা করার,
To walk হাটতে/ হাটার..........।
এখন To+ verbএর সাথে object বসাতে পারেন।
যেমন: To Do the work, কাজটি করতে/ করার।
To Learn English, ইংরেজী শিখতে/ শেখার
To Read the Book, বইটি পড়তে / পড়ার
To Think the Matter, বিষয়টি চিন্তা করতে/ করার,
To Achieve Knowledge,জ্ঞান অর্জন করতে/ করার।
এখন ছোট ছোট বাক্যগুলির সাথে to+ verb word যোগ করে বাক্য বড় করা শিখুন।
EXAMPLE: I want to do the work, i want to learn English, i want to take the opportunity..........
Rules 4, ing+verb. ( verb এর সাথে (আ,এ,ইয়া) থাকলে verb এর সাথে ing যোগ করতে হয়। যেমন
doing করা, করে, করিয়া,
learning শেখা, শিখে,শিখিয়া,
thinking চিন্তা করা, চিন্তা করে,চিন্তা করিয়া,
reading পড়া,পড়ে,পড়িয়া
ing যুক্ত verb এর সাথে object. যোগ করেও বাক্য বড় করুন।যেমন, Doing the Work,কাজটি করিয়া,
Learning English ইংরেজী শিখিয়া/ শিখে
Reading the Book. বইটি পড়িয়া/ পড়ে
................. এভাবে verbএর সাথে ing যোগ করে তারপর সুবিধা মত object নিয়ে ছোট ছোট বাক্য গুলি কে আরো বড় করুন।
To ছাড়া বাকি সব preposition ( for, with,without, affter, before,on,at, in....)এর পর verb এর সাথে ing যোগ করুন। যেমন
for learning,
after eating,
without working,.......... এভাবে preposition এর পর verbএর সাথে ing যোগ করে এবং তারপর সুবিধামত object নিয়ে বাক্য বড় করতে পারেন।
যেমন, For Learning English ইংরেজী শেখার জন্য,
After Doing the Work কাজটি করার পর,
Before Going there, সেখানে যাওয়ার আগে
............এভাবে আপনার ছোট ছোট বাক্যগুলি বড় করতে পারেন।
#### # আপনাদেরকে কিছু বাক্য বড় করে দেখাচ্ছি। যেমন
I want আমি চাই,
I want to learn আমি শিখতে চাই
I want to learn English আমি ইংরেজী শিখতে চাই
I want to learn English for achieving proper knowledge আমি যথাযথ জ্ঞান অর্জন করার জন্য ইংরেজী শিখতে চাই
I want to learn English for achieving proper knowledge reading some foreign books. আমি কিছু বিদেশী বই পড়ে যথাযথ জ্ঞান অর্জন করার জন্য ইংরেজী শিখতে চাই।
## আজ থেকে বড় বড় বাক্য লিখা শুরু করুন। ভুল/ সঠিক হওয়ার চিন্তা ১ মাস বাদ দিন। ধীরে ধীরে দক্ষ হোন।
# # আমার আগের ৫০ টা ৩/৪ শব্দের বাক্যকে আজ মিনিমাম প্রত্যেক টা বাক্যকে ১০ শব্দে লিখার try করুন
#### # বিভিন্ন source থেকে collection করা 45 টা Rules এর মদ্ধে
কিছু Rules একসাথে দেওয়া হল।এগুলি প্রয়োগ করে সহজ ভাষায় বিভিন্ন পোস্টে কমপক্ষে ২০ টা করে কমেন্ট করুন।
# # বাক্যগুলির শুধুমাত্র learn এর পরিবর্তে অন্য verb যেমন(go,do,take,think,make,ear
n,walk,learn,decide.......) বসিয়ে নতুন আরো বাক্য তৈরী করুন
##RULES
I SHOULD have learned English আমার ইংরেজি শেখা উচিত ছিল
i should have told you আমার তোমাকে বলা উচিত ছিল
i should have read the book আমার বই পড়া উচিত ছিল
i should have gone there আমার সেখানে যাওয়া উচিত ছিল
## RULE
i feel like+ ing যুক্ত verb আমার কোন কিছু করতে ইচ্ছে করছে
i feel like learning English আমার ইংরেজি শিখতে ইচ্ছে করছে
i feel like going there আমার সেখানে যেতে ইচ্ছে করছে
i feel like travelling আমার সেখানে ভ্রমন করার ইচ্ছে করছে
Rules. I learn English ( আমি ইংরেজি শিখি)
i go to marketআমি বাজারে যাই,i write a letter আমি চিঠি লিখি, হাটি, i thinkআমি চিন্তা করি, i help the poor আমি গরীব দের সাহাজ্য করি.....)
Rules. I am learning English (আমি ইংরেজি শিখতেছি)
i am going to marketআমি বাজারে যাচ্ছি, i am reading the book আমি বই পড়তেছি i am thinking আমি চিন্তা করতেছি.....
Rules
.I learned English আমি ইংরেজি শিখেছিলাম
i went to market আমি বাজারে গিয়েছিলাম, i read আমি পড়েছিলাম, আমি শিখেছিলাম, i ate আমি খেয়েছিলাম....
Rules
I was learning English আমি ইংরেজি শিখতেছিলাম
i was going to marketআমি বাজারে যাইতেছিলাম, i was reading the bookআমি বই পড়তেছিলাম, i was walkingআমি হাটতেছিলাম......
Rules
. I have learned English আমি ইংরেজি শিখেছি
i have gone to market আমি বাজারে গিয়েছি, i have eatenআমি ভাত খেয়েছি, i have read a book আমি বই পড়েছি.....
Rules
. I will learn English.আমি ইংরেজি শিখবো
i will read a book আমি বই পড়বো, i will go to market আমি বাজারে যাব, i will think আমি চিন্তা করবো
Rules
. I will be learning English আমি ইংরেজি শিখতেই থাকব
i will be reading the book আমি বই পড়তেই থাকব,i will be earning money আমি টাকা উপার্জন করতেই থাকব, আমি খুজতেই থাকব....
Rules
I am supposed to learn English আমার ইংরেজি শেখার কথা
i am supposed to read the bookআমার বই পড়ার কথা, i am supposed to go there আমার সেখানে যাওয়ার কথা,......
Rules
I am likely to learn English আমার ইংরেজি শেখার সম্ভাবনা আছে,
i am likely to go thereআমার সেখানে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে, i am likely to eat আমার খাওয়ার সম্ভাবনা আছে...
Rules
. I have to learn English আমাকে ইংরেজি শিখতে হবে,/ আমার ইংরেজি শিখতে হয়
i have to goআমার বাজারে যেতে হবে/ আমার ববাজারে যেতে হয়,i have to solve the problem আমার সমস্যাটির সমাধান করতে হবে/আমার সমস্যাটির সমাধান করতে হয়.......
## এখন learn. এর পরিবর্তে নতুন নতুন verb যেমন go,do,eat,think,take,come,discuss, dream.... যোগ করে নতুন বাক্য তৈরী করুন। বাক্যগুলির সাথে (to + verb), (ing যুক্ত verb), (preposition+ ing যুক্ত verb) যোগ করে বাক্যগুলি বড় করুন।
##### উপরের বাক্যগুলির শুধুমাত্র learn এর পরিবর্তে অন্য verb যেমন ( go,do,take,thin
k,make,earn,walk,learn,decide.......) বসিয়ে নতুন আরো বাক্য তৈরী করুন এবং আগের Rules গুলির মদ্ধে Rules 3, Rules 4, Rules 5 এর বিষয়গুলির সাহাজ্যে বাক্যগুলি আপনার সুবিধামত বড় করুন। কমেন্ট এ Rules3,Rules4,R
ules5. এর বিষয়গুলি দেওয়া আছে।
# # কাল্পনিক কথা বলার জন্য নিচের লেসন টি খুব ভাল্ভাবে আয়ত্ত করুন
##RULE
IF I WERE A KING, i would ensure better treatment for the poor. যদি আমি রাজা হতাম, তাহলে গরীব দের জন্য ভাল উন্নত চিকিতসা নিশ্চিত করতাম
if i were a prime minister, i would help the poor,যদি আমি প্রধানমন্ত্রী হতাম, তাহলে গরীব দের সাহাজ্য করতাম
if i were a cricket player, i would earn huge amount of money যদি আমি ক্রিকেট খেলোয়ার হতাম, তাহলে প্রচুর টাকা উপার্জন করতাম।
if i had much money , i would help the poor যদি আমার টাকা থাকতো, তাহলে আমি গরীব দের সাহাজ্য করতাম
if i had her number, i would call her যদি আমার কাছে তার নাম্বার থাকতো, তাহলে আমি তাকে কল দিতাম
if i had a car, i would travel my city safely যদি আমার একটি গাড়ি থাকতো তাহলে আমি নিরাপদে আমার শহর ভ্রমন করতাম
if i had more time , i would learn new things, যদি আমার সময় থাক তো, তাহলে আমি নতুন নতুন জিনিস শিখতাম
if i had money, i would help the poor যদি আমার টাকা থাকতো, তাহলে আমি গরীব দের সাহাজ্য করতাম।
## I wish I could +verb আমার ইচ্ছা হয় যদি আমি কিছু করতে পারতাম
I wish I could learn English আমার ইচ্ছে হয় যদি আমি ইংরেজী শিখতে পারতাম
"I wish I could speak English আমার ইচ্ছে হয় যদি আমি ইংরেজী বলতে পারতাম
"I wish I could understand English."আমার ইচ্ছে হয় যদি আমি ইংরেজী বুঝতে পারতাম
"I wish I could read Englishআমার ইচ্ছে হয় যদি আমি ইংরেজী পড়তে পারতাম
"I wish I could write betterআমার ইচ্ছে হয় যদি আমি ভাল্ভাবে লিখতে পারতাম
i wish i could listen English songআমার ইচ্ছে হয় যদি আমি ইংরেজী গান শুনতে পারতাম
i wash i could improve my Englishআমার ইচ্ছে হয় যদি আমার ইংরেজীর উন্নয়ন করতে পারতাম
## English এ Fluency আসার পর আপনি নিয়মিত চর্চা করা থেকে দূরে থাকলে আপনি কিন্তু নিজের অজান্তেই Fluency আবার হারিয়ে ফেলবেন। তাই প্রতিদিন English চর্চা করুন।
######## এই Rules গুলি প্রয়োগ করে আপনি কথা বলা শুরু না করলে ১ লক্ষ Rules শিখলেও লাভ হবে না। তাই এই সহজ Rules গুলি আপনার দৈনন্দিন জীবনে প্রয়োগ করে English এ দক্ষ হোন।### কমেন্ট এ কেউ ভুল English লিখলেও কেউ ভুল ধরবেন না। Weak Student দের ভুল publicly ধরলে তারা শিখতে নিরুৎসাহিত হয়।###Rules ভালভাবে আয়ত্ত করার পর যত বেশি এগুলি প্রয়োগ করে কথা বলা শুরু করবেন তত দ্রুত English এ fluent হবেন। শুধু Rules দিয়ে কোনদিন spoken English এ দক্ষ হওয়া যাবে না। সুতরাং আজ থেকেই English এ কথা বলা শুরু করে দিন।
Copy

"উটের দিকে তাকিয়ে দেখেছ, কীভাবে তাকে সৃষ্টি করা হয়েছে?” (সূরা গাশিয়াহ ১৭)
.
উট প্রকৃতির এক মহাবিস্ময়, এটি ৫৩ ডিগ্রি গরম এবং মাইনাস-১ ডিগ্রি শীতেও টিকে থাকে। মরুভূমির উত্তপ্ত বালুর উপর ঘণ্টার পর ঘণ্টা পা ফেলে রাখে। কোনো পানি পান না করে মাসের পর মাস চলে। মরুভূমির বড় বড় কাঁটাসহ ক্যাকটাস খেয়ে ফেলে। দেড়শ কেজি ওজন পিঠে নিয়ে শত মাইল হেঁটে পার হয়। উটের মত এত অসাধারণ ডিজাইনের প্রাণী প্রাণীবিজ্ঞানীদের কাছে এক মহাবিস্মউট প্রকৃতির এক মহাবিস্ময়, এটি ৫৩ ডিগ্রি গরম এবং মাইনাস-১ ডিগ্রি শীতেও টিকে থাকে। মরুভূমির উত্তপ্ত বালুর উপর ঘণ্টার পর ঘণ্টা পা ফেলে রাখে। কোনো পানি পান না করে মাসের পর মাস চলে। মরুভূমির বড় বড় কাঁটাসহ ক্যাকটাস খেয়ে ফেলে। দেড়শ কেজি ওজন পিঠে নিয়ে শত মাইল হেঁটে পার হয়। উটের মত এত অসাধারণ ডিজাইনের প্রাণী প্রাণীবিজ্ঞানীদের কাছে এক মহাবিস্ময়।
মানুষসহ বেশিরভাগ স্তন্যপায়ী প্রাণীর দেহের তাপমাত্রা সাধারণত ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের (৯৮ ডিগ্রি ফারেনহাইট) এর আশেপাশে থাকে। যদি দেহের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বেড়ে ৩৮.৫ ডিগ্রির (১০২ ফা) বেশি হয়ে যায়, তখন অভ্যন্তরীণ অঙ্গগুলোর ক্ষতি হতে থাকে। ৪০ ডিগ্রির (১০৪ ফা) বেশি হয়ে গেলে লিভার, কিডনি, মস্তিষ্ক, খাদ্যতন্ত্র ব্যাপক ক্ষতি হয়। ৪১ ডিগ্রি (১০৫ ফা) তাপমাত্রায় শরীরের কোষ মরে যেতে শুরু করে।
একারণেই যখন স্তন্যপায়ী প্রাণীদের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে বেড়ে যায়, তখন শরীর ঘেমে বাড়তি তাপ বের করে দিয়ে ঠাণ্ডা হয়ে যায়। কিন্তু উটের জন্য এভাবে পানি অপচয় করা বিলাসিতা। কারণ মরুভূমিতে সবচেয়ে দুর্লভ সম্পদ হচ্ছে পানি। একারণে উটের শরীরে এক বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে। ভোরবেলা এর শরীরের তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি থাকে। তারপর আবহাওয়া যখন প্রচণ্ড গরম হয়ে যায়, তখন অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বেড়ে ৪১ ডিগ্রি (১০৪ ফা) পর্যন্ত ওঠে। এর পর থেকে এটি ঘামা শুরু করে। এর আগে পর্যন্ত এটি পানি ধরে রাখে। এভাবে প্রতিদিন উট স্বাভাবিক তাপমাত্রা থেকে প্রচণ্ড জ্বরের তাপমাত্রা পর্যন্ত সহ্য করে। এর শরীরের ভেতরে ব্যবস্থা রাখা আছে, যেন তা দিনের পর দিন ভীষণ জ্বর সহ্য করার পরেও অভ্যন্তরীণ অঙ্গগুলোর বড় ধরনের ক্ষতি না হয়।
উটের রক্ত বিশেষভাবে তৈরি প্রচুর পরিমাণে পানি ধরে রাখার জন্য। উট যখন একবার পানি পান করা শুরু করে, তখন এটি প্রায় ১৩০ লিটার পানি, প্রায় তিনটি গাড়ির ফুয়েল ট্যাঙ্কের সমান পানি, ১০ মিনিটের মধ্যে পান করে ফেলতে পারে। এই বিপুল পরিমাণের পানি অন্য কোনো প্রাণী পান করলে রক্তে মাত্রাতিরিক্ত পানি গিয়ে অভিস্রবণ চাপের কারণে রক্তের কোষ ফুলে ফেঁপে ফেটে যেত। কিন্তু উটের রক্তের কোষে এক বিশেষ আবরণ আছে, যা অনেক বেশি চাপ সহ্য করতে পারে। এই বিশেষ রক্তের কারণেই উটের পক্ষে একবারে এত পানি পান করা সম্ভব হয়।
উটের কুজ হচ্ছে চর্বির আধার। চর্বি উটকে শক্তি এবং পুষ্টি যোগায়। আর পানি শরীরের যাবতীয় আভ্যন্তরীণ কাজকর্ম সচল রাখে, শরীরের তাপমাত্রা ঠিক রাখে। একবার যথেষ্ট খাবার এবং পানি নেওয়ার পর একটি উট ছয় মাস পর্যন্ত কোনো খাবার বা পানি পান না করে টিকে থাকতে পারে।
উট হচ্ছে মরুভূমির জাহাজ। এটি ১৭০-২৭০ কেজি পর্যন্ত ভর নিয়েও হাসিমুখে চলাফেরা করে। এই বিশাল, শক্তিশালী প্রাণীটির মানুষের প্রতি শান্ত, অনুগত হওয়ার কোনোই কারণ ছিল না। বরং এরকম স্বয়ংসম্পূর্ণ প্রাণীর হিংস্র হওয়ার কথা, যেন কেউ তাকে ঘাঁটানোর সাহস না করে। বিবর্তনবাদীদের বানানো বহু নিয়ম ভঙ্গ করে এই প্রাণীটি কোনো কারণে নিরীহ, শান্ত, মানুষের প্রতি অনুগত হয়ে গেছে। আল্লাহ যদি উটকে মানুষের জন্য উপযোগী করে না বানাতেন, তাহলে মরুভূমিতে মানুষের পক্ষে সভ্যতা গড়ে তোলা অসম্ভব হয়ে যেত।
উটের আরেকটি উল্লেখযোগ্য ক্ষমতা হলো কাটা যুক্ত গাছপালা চিবানোর ক্ষমতা, যা অন্য কোনো প্রাণীর নেই। বড় বড় কাঁটাসহ ক্যাকটাস এটি সাবাড় করে দিতে পারে।

আজ আন্তর্জাতিক আরবি ভাষা দিবস, প্রথমবারের মতো উদযাপিত হচ্ছে বাংলাদেশে

আজ ১৮ই ডিসেম্বর। আন্তর্জাতিক আরবি ভাষা দিবস। প্রতি বছর ১৮ ডিসেম্বর দিবসটি পালিত হয়ে থাকে। ২০১০ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৩১৯০ নং সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই দিনে বিশ্ব আরবি ভাষা দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, কারণ ১৯৭৩ সালের এই দিনে জাতিসংঘের আনুষ্ঠানিক ভাষা এবং জাতিসংঘের দাপ্তরিক কার্যক্রম সমূহের ব্যবহারিক ভাষা হিসেবে গৃহিত হয়।

মধ্যপ্রাচ্যের সব কটি দেশের অফিসিয়াল ভাষা আরবি, ইসলামের আবির্ভাবের ঠিক আগের যুগে আরব উপদ্বীপে আরবি ভাষার উৎপত্তি ঘটে। জাতিসংঘের ৬টি দাপ্তরিক ভাষার একটি আরবি। মধ্যপ্রাচ্যে ছাড়া ও বর্তমান বিশ্বের ২৮ রাষ্ট্রের অফিসিয়াল ভাষা হচ্ছে আরবি। আধুনিক আরবিকে "ম্যাক্রোভাষা" আখ্যা দেয়া হয়, ISO স্বীকৃত আরবি ভাষার ২৭ রকমের উপভাষা রয়েছে । সমগ্র আরব বিশ্ব জুড়ে এই উপভাষাগুলি প্রচলিত এবং আধুনিক আদর্শ আরবি ইসলামী বিশ্বের সর্বত্র পড়া ও লেখা হয়। আধুনিক আদর্শ আরবি চিরায়ত আরবি থেকে উদ্ভূত। মধ্যযুগে আরবি গণিত, বিজ্ঞান ও দর্শনের প্রধান বাহক ভাষা ছিল। বিশ্বের বহু ভাষা আরবি থেকে শব্দ ধার করেছে।

পৃথিবীর সকল ভাষার মাঝে আরবী ভাষার মান সবচেয়ে উচ্চ ও উন্নত। আরবী ভাষা কালজয়ী ভাষা। পৃথিবীর অনেক ভাষাতে কোনো না কোনো সময় ব্যাপক পরিবর্তন আসলে ও আরবী ভাষা আল্লাহর বিশেষ ব্যবস্থাপনায় রয়েছে অপরিবর্তনীয় ও অবিকৃত। কালের প্রবাহ কখনো এর মৌলিক বৈশিষ্ট্যকে ক্ষুণ্ণ করতে পারেনি।

অর্থনৈতিক বিবেচনায় অনেক কারনে আরবি ভাষা শিক্ষা বাংলাদেশের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। দেশের অর্থনীতির অন্যতম উৎস রেমিটেন্স সৈনিকদের সিংহভাগ থাকেন মধ্যপ্রাচে। তাই দেশের রেমিটেন্স বাড়ানোর স্বার্থে, কূটনৈতিক সম্পর্ক দৃঢ়করণ, ব্যবসায়িক সফলতা অর্জন ও দেশীয় অর্থনীতিকে উন্নতির স্বার্থে আরবি ভাষাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে গুরুত্ব দেয়া দরকার।

প্রথমবারের মত বাংলাদেশে উদযাপিত হতে যাচ্ছে বিশ্ব আরবি ভাষা দিবস। ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয় দিবসটি উদযাপনের আয়োজন করেছে। এ উপলক্ষে আজ দুপুর ২টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা ও বিশ্ব আরবি ভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আল্লাহ সুবহানা ওয়া তায়ালার অপুর্ব সৃষ্টি।

😍সবাইকে বিজয় দিবসের উপহার 😍

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাসঃ
.
১,রাইফেল রোটি আওরাত;আনোয়ার পাশা।
২,জাহান্নাম হইতে বিধায়;শওকত ওসমান।
৩,ওংকার;আহমদ ছফা।
৪,হাঙ্গর নদী গ্রেনেড;সেলিনা হোসেন।
৫,খাঁচায়;রশীদ হায়দার।
.
কবিতাঃ
১,মুক্তিযোদ্ধা;জসীমউদদীন।
২,দগ্ধগ্রাম;জসীমউদদীন।
৩,বন্দী শিবির থেকে;শামসুর রহমান।
৪,পুত্রদের প্রতি;আবুল হোসেন।
৫,প্রথম শহীদ বাংলাদেশের মেয়ে;সুফিয়া
কামাল।
.
নাটকঃ
১,পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায় - সৈয়দ শামসুল
হক
২,বকুলপুরের স্বাধীনতা;মমতাজউদদীন আহমদ।
৩,নরকে লাল গোলাপ;আলাউদদীন আল আজাদ।
৪,আয়নায় বন্ধুর মুখ;আবদুল্লাহ আল মামুন।
৫,যে অরন্যে আলো নেই;নীলিমা ইব্রাহিম।
স্বাধীনতাপূর্ব ও পরোক্ষভাবে স্বাধীনতার
ইঙ্গিতবাহী উপন্যাসঃ
১,ক্রতিদাসের হাসি;১৯৬২;শওকত ওসমান।
২,কিষাণ;১৯৬৯;ইন্দু সাহা।
৩,রাঙ্গা প্রভাত;১৯৫৭;আবুল ফজল।
৪,নীড় সন্ধানী;১৯৬৮;আনোয়ার পাশা।
৫,বিদ্রোহী কৈবর্ত;১৯৬৯;সত্যেন সেন।
.
চলচ্চিত্রঃ
১,ওরা ১১ জন;চাষী নজরুল ইসলাম।
২,গেরিলা;নাসির উদ্দীন ইউসুফ।
৩,লাল সবুজ;শহীদুল ইসলাম।
৪,আমার দেশের মাটি;অনন্ত হীরা।
৫,প্রত্যাবর্তন;মোস্তফা কামাল।
-
প্রামান্য চিত্রঃ
১,দুঃসময়ের বন্ধু;শাহরিয়ার কবির।
২,১৯৭১;তানভীর মোকাম্মেল।
৩,স্টপ জেনোসাইড;জহির রায়হান।
৪,মুক্তির গান;তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ।
৫,লিবারেল ফাইটার্স;আলমগীর কবির।
.
ছোটগল্পঃ
১,একাত্তরের যীশু;শাহরিয়ার কবির।
২,জন্ম যদি তব বঙ্গে;শওকত ওসমান।
৩,নামহীন গোত্রহীন;হাসান আজিজুল হক।
৪,মিলির হাতে স্টেনগান;আখতারুজ্জামান
ইলিয়াস।
৫,বীরাঙ্গনার প্রেম;বিপ্রদাস বড়ুয়া।
.
স্মৃতিকথাঃ
১,আমি বিজয় দেখেছি;এম আর আখতার মুকুল।
২,একাত্তরের দিনগুলি;জাহানারা ইমাম।
৩,একাত্তরের ডায়েরী;সুফিয়া কামাল।
.
প্রবন্ধঃ
১,A search for identity;মে.মো.আবদুল জলিল
২,The liberation of Bangladesh;মে.জে,সুখওয়ান্ত
সিং।
৩,একাত্তরে ঢাকা;সেলিনা হোসেন।
৪,আমি বীরাঙ্গনা বলছি;ড.নীলিমা ইব্রাহিম।
বিদেশী ভাষার বইঃ
১,The rape of Bangladesh;অ্যান্থনি
মাসকারেনহাস।
২,Legacy of Blood ;অ্যান্থনি মাসকারেনহাস।
৩,The testimony of sixty;Oxfam
৪,A search for identity;
৫,The liberation of Bangladesh;
.
স্থাপত্যঃ
১,জাতীয় স্মৃতিসৌধ;সাভার;সৈয়দ মইনুল
হোসেন।
২,বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ;মিরপুর;মোস্তফা হারুন
কুদ্দুস হিলি।
৩,স্বোপার্জিত স্বাধীনতা;ঢাবি;শামীম
শিকদার;
৪,সংশপ্তক;জাবি.
৫,অপরাজেয় বাংলা;ঢাবি;সৈয়দ আবদুল্লাহ
খালেদ।
.
গানঃ
১,মোরা একটি ফুলকে বাচাব;গোবিন্দ হালদার।
২,জন্ম আমার ধন্য হল;নাঈম গহর।
৩,জনতার সংগ্রাম চলবেই;সিকানদার আবু
জাফর।
৪,শুন একটি মুজিবুরের;গৌরিপ্রসন্ন মজুমদার।
৫,নোঙ্গর তোল তোল;নাঈম গহর।
.
এবার ভাষা আন্দোলনভিত্তিকঃ
উপন্যাসঃ
১,আরেক ফাল্গুন;জহির রায়হান।
২,আর্তনাদ;শওকত ওসমান।
৩,নিরন্তর ঘন্টাধ্বনি;সেলিনা হোসেন।
.
গল্প ও ছোটগল্পঃ
১,একুশের গল্প;জহির রায়হান।
২,মৌন নয়;শওকত ওসমান।
৩,পণ্ডশ্রম;আবু ইসহাক।
.
নাটকঃ
১,কবর ;মুনীর চৌধুরী।
সাহিত্য সংকলনঃ
১,একুশে ফেব্রুয়ারি;হাসান হাফিজুর রহমান।
.
চলচ্চিত্রঃ
১,জীবন থেকে নেয়া;জহির রায়হান।
২,Let there be light;জহির রায়হান।
.
কবিতা ও ছড়াঃ
১,কাঁদতে আসিনি,ফাঁসির দাবি নিয়ে
এসেছি;মাহবুব উল আলম চৌধুরী।
২,শহীদ স্মরনে;মো.মনিরুজ্জামান।
৩,সংগ্রাম চলবেই;সিকানদার আবু জাফর।
৪,স্মৃতিস্তম্ভ;আলাউদ্দিন আল আজাদ।
৫,একুশের কবিতা;আল মাহমুদ।
.
গানঃ
১,আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো;আবদুল
গাফফার চৌধুরী।
২,বাংলা বিনে গতি নাই;আবদুল লতিফ।
৩,ওরা আমার মুখের ভাষা কাইরা নিতে
চায়;আবদুল লতিফ।
৪,জাগিছে প্রভাত;জসীমউদদীন।
এছাড়া ভাষা আন্দোলন নিয়ে চিত্রকল্প
করেছেন,
শিল্পাচার্য জয়নুল,কামরুল হাসান,হামিদুজ্জামান সহ
অনেকে।

#সজিনা_গাছ_কে_বলা_হয়_পুস্টির_ডিনামাইট

সজিনা গাছের পাতাকে বলা হয় অলৌকিক পাতা। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে পুষ্টিকর হার্ব। গবেষকরা সজিনা পাতাকে বলে থাকেন নিউট্রিশন্স সুপার ফুড।

এটির শাক হিসেবে ব্যবহৃত পাতা ভিটামিন A -এর এক বিশাল উৎস। সজনের পাতা এবং ফল উভয়ের মধ্যেই বিপুল পরিমাণে পুষ্টি আছে। এতসব পুষ্টিগুণ একসাথে আছে বলেই এর মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং জীবন ধারনের পুষ্টি দুটোই পাওয়া যায়।

★ প্রতি গ্রাম সজনে পাতায়ঃ-
* একটি কমলার চেয়ে সাত গুণ বেশি ভিটামিন c রয়েছে।
* দুধের চেয়ে চার গুণ বেশি ক্যালসিয়াম ও দুই গুণ বেশি প্রোটিন রয়েছে।
* গাজরের চেয়ে চার গুণ বেশি ভিটামিন a এবং কলার চেয়ে তিন গুণ বেশি পটাশিয়াম বিদ্যমান।ফলে এটি অন্ধত্ব, রক্তস্বল্পতা সহ বিভিন্ন ভিটামিন ঘাটতি জনিত রোগের বিরুদ্ধে বিশেষ হাতিয়ার হিসেবে কাজ করে।

★ এতে প্রচুর পরিমাণে জিঙ্ক থাকে এবং পালংশাকের চেয়ে তিন গুণ বেশি আয়রণ বিদ্যমান, যা এ্যানেমিয়া দূরীকরণে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

★ সজনে শরীরে কোলেস্টেরল এর মাত্রা নিয়ন্ত্রনেও অন্যতম অবদান রাখে।

★ মানুষের শরীরের প্রায় ২০% প্রোটিন যার গাঠনিক একক হলো এমাইনো এসিড। শরীরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মেটাবোলিজম এবং অন্যান্য শারীরবৃত্ত্বীয় কার্যাবলী পরিপূর্ণরূপে সম্পাদনে এমাইনো এসিড গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। মানুষের শরীরের যে ৯ টি এমাইনো এসিড খাদ্যের মাধ্যমে সরবরাহ করতে হয়, তার সবগুলোই এই সাজনার মধ্যে বিদ্যমান।

★ এটি শরীরে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে ডায়াবেটিসের মত কঠিন রোগের বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে।

★ নিয়মিত দৈনিক সেবন শরীরের ডিফেন্স মেকানিজমকে আরো শক্তিশালী করে এবং ‘ইমিউনিটি স্টিমুল্যান্ট’ হওয়ার দরুন এটি ‘এইডস’ আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

★ এটি শরীরের হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করে পুষ্টিবর্ধক হিসেবে কাজ করে।

★ শরীরের ওজন কমাতেও ব্যায়ামের পাশাপাশি এটি বেশ কার্যকরী ভুমিকা পালন করে থাকে।

★ এটি মায়ের বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই। পাতা থেকে তৈরি এক টেবিল চামচ পাউডারে ১৪% প্রোটিন, ৪০% ক্যালসিয়াম, ২৩% আয়রণ বিদ্যমান, যা ১ থেকে তিন বছরের শিশুর সুষ্ঠু বিকাশে সাহায্য করে। গর্ভাবস্থায় এবং বুকের দুধ খাওয়ানোকালীন সময়ে ৬ টেবিল চামচ পাউডার একজন মায়ের প্রতিদিনের আয়রণ এবং ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণ করে থাকে।

★ এটির এন্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান। এটি যকৃত ও কিডনী সুস্থ্য রাখতে এবং রূপের সৌন্দর্য বর্ধক হিসেবেও কাজ করে থাকে।

★ সাজনাতে প্রায় ৯০টিরও বেশি এবং ৪৬ রকমের এন্টি-অক্সিডেন্ট বিদ্যমান।

★ এতে ৩৬ টির মত এন্টি-ইনফ্ল্যামমেটরি বৈশিষ্ট্য আছে। এছাড়াও এটি অকাল বার্ধক্যজনিত সমস্যা দূর করে এবং ক্যান্সারের বিরুদ্ধে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

তাছাড়া সজিনাতে প্রতি ১০০ গ্রামে খাদ্যপোযোগী পুষ্টি উপাদান সমুহঃ-

জ্বলীয় অংশ = ৮৩.৩ গ্রাম
খনিজ = ১.৯ গ্রাম
আঁশ = ৪.৮ গ্রাম
খাদ্যশক্তি = ৬০ কিলোক্যালোরি
প্রোটিন = ৩.২ গ্রাম
চর্বি = ০.১ গ্রাম
শর্করা = ১১.৪ গ্রাম
ক্যলশিয়াম = ২১.০ মিলিগ্রাম
লোহা = ৫.৩ মিলিগ্রাম
ক্যারোটিন = ৭৫০ মাইক্রোগ্রাম
ভিটামিন=বি=১ = ০.০৪ মিলিগ্রাম
ভিটামিন=বি=১ = ০.০২ মিলিগ্রাম
ভিটামিন=সি = ৪৫.০ মিলিগ্রাম
===========================

এখন হারানো এনআইডি কার্ড ফিরে পাবেন মাত্র একদিনেই।

জাতীয় পরিচয়পত্র এখন আর সোনার হরিণ নয়। হারিয়ে গেলে কিংবা নষ্ট হয়ে গেলে চিন্তার কিছু নেই। এখন হারানো কিংবা নষ্ট হওয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ফিরে পাওয়া সম্ভব মাত্র একদিনেই! বলা যেতে পারে মাত্র এক থেকে দেড় ঘণ্টার মধ্যেই আপনি পেয়ে যেতে পারেন মহামূল্যবান জাতীয় পরিচয়পত্র। কিন্তু কীভাবে?

খুবই সহজে, শুধু মাথায় রাখতে নিচের কয়েকটি তথ্যঃ-

*** জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার জন্য আপনাকে চলে যেতে হবে নির্বাচন কমিশন অফিসের জাতীয় পরিচয়পত্র সেকশনে। রাজধানীর আগারগাঁওয়ের ইসলামিক ফাউন্ডেশন ভবনে পরিচয়পত্র প্রদান অফিস।
*** ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নিচতলার তথ্যকেন্দ্রে গিয়ে বিনামূল্যে শুধু একটি ’হারানো ফর্ম’ নিন। জানা না থাকলে স্লিপ দেখিয়ে জেনে নিন আপনার এনআইডি নম্বর।
*** এরপরে ভবনের বাইরে এসে ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং এর দোকান থেকে ৩৬৮ টাকা এনআইডি নম্বরে প্রেরণ করুন। ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং এর TRX (টাকা পাঠানোর পর মেসেজে নম্বর আসে) ফরমে লিখে দিন।

*** ফরমে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি পূরণ করুন।

*** সাথে যুক্ত করে দিন আপনার সাথে থাকা নির্বাচন কমিশন থেকে দেওয়া স্লিপ অথবা হারিয়ে গেলে তার জিডি কপি।

*** যেকোনো দিন অফিস চলাকালীন ফরমটি ওই নিচতলাতেই বেলা ১২টার আগে জমা দিন। দুপুর ১টার মধ্যেই পেয়ে যাবেন আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র।

*** জরুরি ভিত্তিতে প্রাপ্তির জন্য খরচ ৩৬৮ টাকা। তবে বিনামূল্যে সব নিয়ম পালন করে জাতীয় পরিচয়পত্র তুলতে ১০ থেকে ৩০ দিন লাগবে...

কপি.....

মৃত্যুর পর মানুষের _৯টি আকাঙ্খা_আফসোস :

● "হায়! আমি যদি মাটি হয়ে যেতাম।" (সূরাহ নাবা, আয়াত : ৪০)

● "হায়! যদি পরকালের জন্য কিছু করতাম।" (সূরাহ ফজর, আয়াত : ২৪)

● "হায়! আমাকে যদি আমার আমলনামা না দেওয়া হতো।" (সূরাহ আল-হাক্কা, আয়াত : ২৫)

● "হায়! আমি যদি ওকে বন্ধুরূপে গ্রহণ না করতাম।" (সূরাহ ফুরকান, আয়াত : ২৮)

● "হায়! আমরা যদি আল্লাহ ও আল্লাহর রাসূল ﷺ এর আনুগত্য করতাম।" (সূরা আহযাব, আয়াত : ৬৬)

● "হায়! আমি যদি রাসূল ﷺ এর পথ অবলম্বন করতাম।" (সূরাহ ফুরকান, আয়াত : ২৭)

● "হায়! আমিও যদি তাদের সঙ্গে থাকতাম, তা হলে বিরাট সফলতা লাভ করতে পারতাম।" (সূরাহ আন-নিসা, আয়াত : ৭৩)

● "হায়! আমি যদি আমার রবের সঙ্গে কাউকে শরীক না করতাম।" (সূরা কাহফ, আয়াত : ৪২)

● "হায়! এমন যদি কোনো সুরত হতো ― আমাদেরকে আবার দুনিয়াতে পাঠানো হতো, আমরা আমাদের প্রভুকে মিথ্যা প্রতিপন্ন না করতাম আর আমরা হতাম ঈমানদারদের শামিল।" (সূরাহ আনআম, আয়াত : ২৭)

23-Feb-2020 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 4861+)
প্রশ্নঃ বাংলাদেশটা আসলেই অপরূপ! আমরা বাংলাদেশের সৌন্দয্য সম্পর্কে জানিনা বিধায় দেশের বাহিরে ঘুরতে যাই।পাহার, ঝণা, অপরূপ চা বাগান, নদী, সুন্দরবন, সমুদ্র ইত্যাদি দিয়ে অপরূপ সৌন্দয্য মোড়ানো ৬৪টি জেলা। আমরা বাংলাদেশের ৬৪টি জেলাই দেখে শেষ করতে পারি না, অথচ অবসর সময় কাটাতে চলে যাই দেশের বাহিরে। বাংলাদেশে একমাত্র গরম পানির ঝর্ণা কোথায় অবস্থিত?
(A) সীতাকুণ্ড পাহাড়, চট্টগ্রাম
(B) হীমছড়ি, কক্সবাজার
(C) তাজিংডং, বান্দরবন