আমলকী হলো সবচেয়ে উপকারী ভেষজের মধ্যে একটি। আমলকীর রস স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। আমলকী মানুষের রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করতে সাহায্য করে। এটি আপনি প্রতিদিনই খেতে পারেন এবং এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। এটি ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসে খুবই কার্যকরী। আমলকীর এমন নানাবিধ গুণাগুণ রয়েছে।



তাহলে জেনে নিন আমলকীর এমন কিছু গুণাগুণ সম্পর্কে।

আমলকীতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি।এটি যকৃতের কোষকে পুনরুজ্জীবন দেয়। আমলকী জন্ডিস নিরাময়েও অত্যন্ত উপযোগী।
ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য আমলকীর রস অত্যন্ত উপকারী। এতে থাকা ভিটামিন সি ইনসুলিন উৎপাদনকে নিয়ন্ত্রণ করে। কাঁচা বা রস বের করে অল্প গরম পানিতে মিশিয়ে খেতে পারেন।
আমলকী ভিটামিন সি তে ভরপুর। এছাড়াও এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে। যা চুল পড়া আটকায়। একইসঙ্গে চুল উজ্জ্বল করে। কাঁচা আমলকী বেটে লেবুর রস মিশিয়ে তা চুলে লাগান। দেড় থেকে ২ ঘণ্টা রেখে দিন। তারপর ধুয়ে নিন।
এটি লিভারকে ভালো রাখতে সাহায্য করে শুধু তাই নয়, লিভারকে সুরক্ষিত রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে।
প্রায় এক চা চামচ আমলকী গুঁড়া, এক গ্লাস গরম পানির সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন খালি পেটে পান করুন। কোলেস্টেরল লেভেলকে কমাতে এটি অন্যতম ভালো একটি ঘরোয়া প্রতিকার।
নানা রোগেই আমলকী মহৌষধির কাজ করে। এতে থাকা ভিটামিন সি অন্যান্য স্বাস্থ্যকর উপাদান হাইপারটেনশনকে কমায়। এছাড়া রক্তকে গাঢ় হতে দেয় না।
এতে উপস্থিত ভিটামিন সি শরীরে জমে থাকা টক্সিনকে টেনে বের করে দেয়। রোজ সকালে এক চামচ আমলকীর রস খেলে শরীর ও লিভার দুটিই চাঙা থাকবে।
আমলকীতে রয়েছে ভিটামিন সি ও অন্যান্য নানা পুষ্টিগুণ যা গরমে সুস্থ থাকতে ভীষণ প্রয়োজনীয়। অ্যানার্জি বাড়িয়ে দিতে এর জুড়ি নেই। ফলে কাঁচা, সেদ্ধ বা আচার যে কোনোভাবেই আমলকী খেয়ে উপকার পাবেন।
কালো রং বানাতে প্রয়োজন পড়ে এটির। যতটা রং বানাতে চান সেই মতো আমলকী কিনে প্রথমে শুকিয়ে নিন। তারপর সেগুলি সেদ্ধ করুন। সেদ্ধ হয়ে গেলে সারা রাত রেখে দিয়ে পরদিন পানির সঙ্গে মিশিয়ে নিন। দেখবেন কালো রং তৈরি হয়ে গেছে।

{মাত্র ১ মিনিট সময় নিয়ে পড়বেন, আর আপনাদের উপর ছেড়ে দিলাম আপনারাই সিদ্ধান্ত নেবেন আসলে আমরা কি করছি!

ফুল দিতে যাচ্ছিলাম হটাত্‍ পথ আগলে দাঁড়ালো রফিক, সালাম, বরকত ও জব্বার .....!!!

★রফিকঃ -- কই যাও?

★আমিঃ --জ্বী, শহীদ মিনারে ফুল দিতে যাচ্ছি।

★সালামঃ -- ফুল দিয়ে কি হবে?

★আমিঃ -- না, মানে আপনাদের
স্মরণ করা হল। আপনাদের আত্মা শান্তি পাবে।

★বরকতঃ -- হা... Read More>>

বাংলা সিনেমায় যার নাম স্মরণ করা হবে চিরকাল...... Read More>>

21-Feb-2020 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 3281+)
প্রশ্নঃ ভাষা আন্দোলনে কতজন শহীদ হয়েছিল তার সংখ্যা সঠিকভাবে পাওয়া যায় না, তবে পুলিশের গুলিতে ২৬ জন নিহত এবং ৪০০ জনের মতো আহত হয়েছিলেন এমন কিছু তথ্য পাওয়া যায়। ১৯৫২ সালের পর থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষার জন্য বাঙালিদের সেই আত্মত্যাগকে স্মরণ করে দিনটি উদ্যাপন করা হয়। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ইউনেস্কো ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণা করে। জাতিসংঘের ছয়টি অফিসিয়াল ভাষা রয়েছে, নিচের কোনটি জাতিসংষের অফিসিয়াল ভাষা নয়?
(A) ফরাসি
(B) জাপানি
(C) স্পেনীয়