ধর্ষণের শাস্তি যাবজ্জীবন থেকে মৃত্যুদণ্ড, প্রয়োজনে ক্রসফায়ারের দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু।
মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) জাতীয় সংদের অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে তিনি এ দাবি জানান।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনের সভাপতিত্ব করেন।
মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ধর্ষণ প্রতিরোধে অধিবেশনের কোনো একদিন আলোচনার জন্য দুই ঘণ্টা নির্ধারণ করা হোক।
‘ধর্ষণের কারণে নারী সমাজ আতঙ্কিত ও চিন্তিত। গণমাধ্যমে খবর এসেছে ২০১৯ সাল যেন ধর্ষণের মহাসাগর। পুলিশের অপরাধ সম্পর্কিত বার্ষিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, গেলো বছর ১৭ হাজার ৯৯৯টি নারী নির্যাতন মামলা হয়েছে। তার মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৫ হাজার ৪শ জন। ১৮৫ জন শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। ধর্ষণের সময় ২৬ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে। ১৮৩১ জন নারীর মৃত্যু ধর্ষণের পরে। ধর্ষণের শিকার হয়ে মারা গেছে ১৪ জন শিশু। গেলো বছর সবচেয়ে বেশি নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে।’
চুন্নু বলেন, এ বিষয়ে যদি আজ আমরা গুরুত্ব না দেই তাহলে জাতির সামনে আমরা কোনো প্রশ্নের জবাব দিতে পারবো না। কয়েকদিন আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হলো। যদিও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জরুরি ব্যবস্থায় ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারের পরে জনগণ এখনো বিশ্বাসযোগ্য মনে করছে না। এ ঘটনার পরেই সাভারে একজনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। ধামরাইতেও একই ঘটনা ঘটে।
তিনি বলেন, ধর্ষণ হচ্ছে, ধর্ষণের সংখ্যা বাড়ছে, এর থেকে পরিত্রাণের উপায় কী, এ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনার জন্য প্রয়োজনে সংসদের যে কোনো একটি দিন সময় নির্ধারণ করে সংসদ স্থগিত করে দুই ঘণ্টা আলোচনার জন্য সুযোগ দিতে পারেন।
‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামালে সারাদেশে অ্যাসিড নিক্ষেপ বেড়েছিল। সমানে দেখা যেতো কোনো ঘটনা ঘটলেই নারীরা অ্যাসিড নিক্ষেপের শিকার। তখন এরশাদের সরকার ওটাকে প্রতিরোধ করার জন্য অ্যাসিড নিক্ষেপ প্রমাণ হলে আইন সংশোধন করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছিল। এখন সরকারের কাছে আবেদন জানাবো যে হারে ধর্ষণ বেড়েছে, তাতে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে ধর্ষণ নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে না। সময় এসেছে এ বিষয়ে চিন্তা-ভাবনার। সরকারের কাছে আমার অনুরোধ থাকবে ধর্ষণের দায়ে (যদি প্রমাণ হয়) তার সাজা যাবজ্জীন কারাদণ্ড না দিয়ে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, এত ঘটনা ঘটছে, মাদকের জন্য এত ক্রসফায়ার হচ্ছে, সমানে বন্দুকযুদ্ধে মারা যায়। ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধে কেন আজ পর্যন্ত একজন আসামি বন্দুকযুদ্ধে মারা যায় না। সরকার এ বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে ব্যবস্থা না নিলে কোনোক্রমেই এটা কঠোর হবে না। এসময় তিনি গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান ধর্ষণের খবরের মতো ধর্ষণের শাস্তির খবরও ফলাও করে প্রচার করার জন্য। যাতে ধর্ষকরা এ সর্ম্পকে জানতে পারে।

আগে দেখেছেন কখনো 🥺... Read More>>

পাকিস্তানের লাহোরে টি-টোয়েন্টি ট্রফি উন্মোচন করলেন, ক্যাপ্টেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও বাবর আজম, অভিনন্দন অভিনন্দন বাংলাদেশ ।... Read More>>

যেভাবে পরীক্ষায় পর পর একজনের খাতা দেখে সবাই টুকে দেয়... Read More>>

ব্যান্ডেল পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যের হুগলী জেলার চুঁচুড়া মহকুমার অন্তর্গত হুগলী চুঁচুড়া পৌরসভার একটি এলাকা। এখানে পর্তুগীজ উপনিবেশীকদের দ্বারা বসতি স্থাপিত হয় এবং এটি চন্দননগর পুলিশ কমিশনারের আওতাভুক্ত এলাকায় অবস্থিত। এটি কলকাতা মহানগর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেএমডিএ) দ্বারা আচ্ছাদিত এলাকা মধ্যে রয়েছে। ব্যান্ডেল রেলওয়ে জংশন পূর্ব... Read More>>

আমরা যেভাবে ই-পাসপোর্ট পাবোঃ

প্রথমে রাজধানীর আগারগাঁও, উত্তরা ও যাত্রবাড়ী পাসপোর্ট অফিসে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে ২০২০ সালের মধ্যেই সারাদেশে চালু হবে এই পাসপোর্ট সেবা। প্রতিদিন প্রায় ২৫ হাজার ই-পাসপোর্ট ইস্যু করা হবে।

নতুন প্রযুক্তির এই পাসপোর্ট কিভাবে পাওয়া যাবে?

ই-পাসপোর্টের আবেদনঃ

অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করে... Read More>>

বিশ্বের এক নম্বর নষ্ট ও বোকা জাতির নাম হচ্ছে বাঙালী_ যাদের বসবাস এই বাংলাদেশে,,

এটা এমন এক দেশ ৪/৫ দিন আগে- যেখানে মা হারা ১৩ বছরের মেয়েকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ধর্ষণ করে বাবা😭😭

❌এটা এমন এক দেশ
যেখানে ব্লেড দিয়ে কেটে যৌনাঙ্গের প্রবেশ পথ বড় করে ৫ বছরের শিশুকে রাতভর ধর্ষন করা হয়।,😭😭

❌এটা এমন এক দেশ
যেখানে মা কে অচেতন করে রাত বর মেয়ে কে ধর্ষন করে... Read More>>

আজকের সাধারণ জ্ঞান

#বাংলাদেশ বিষয়াবলী
০১. দেশের ‘জাতীয় ভোটার দিবস’ কবে?
উত্তরঃ ২ মার্চ।
## পূর্বে ‘জাতীয় ভোটার দিবস’ ছিল ১ মার্চ, কিন্তু সম্প্রতি ১ মার্চকে ‘জাতীয় বীমা দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করায় এখন থেকে ২ মার্চে ‘জাতীয় ভোটার দিবস’ পালন করা হবে।

০২. প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বর্তমান মহাপরিচালকের নাম কি?
উত্তরঃ বেগম জুবাইদা নাসরিন।
০৩.... Read More>>

23-Jan-2020 তারিখের কুইজ
প্রশ্নঃ বেশির ভাগ বিদ্যুৎ কেন্দ্র গুলি হল কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র। এছাড়া কিছু জলবিদ্যুৎ ও গ্যাস বিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে। ব্যান্ডেল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত?
(A) তামিলনাড়ু
(B) পশ্চিমবঙ্গ
(C) বিহার