ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে এখনও উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোনও মুহূর্তে বড় কিছু অঘটন ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা দু'দেশের মধ্যে। এই উত্তেজনার মধ্যেই তেহরানের সাইবার পরিকাঠামোতে ভয়াবহ সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। যদিও সেই ভয়াবহ সাইবার হামলা রুখে দেওয়া সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইরানের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপমন্ত্রী হামিদ ফাত্তাহি।

গতকাল রবিবার তেহরানে স্থানীয় সাংবাদিকদের এমনটাই জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপমন্ত্রী হামিদ ফাত্তাহি। তিনি বলেন, ভাড়াটে হ্যাকাররা ইরানের সাইবার কার্যক্রমের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, লাখ লাখ উৎস থেকে ইরানের লাখ লাখ সাইবার কেন্দ্রকে টার্গেট করে এই হামলা চালানো হয়। এই হামলা সফল হলে ইরানের ইন্টারনেট নেটওয়ার্কে ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসতে পারত। কিন্তু সাফল্যের সঙ্গে সে হামলা প্রতিহত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফাত্তাহি।
তবে এদিনের এই সাইবার হামলা সবচেয়ে ছিল ভয়াবহ বলে দাবি ইরানের এই উপমন্ত্রীর। তবে সাফল্যের সঙ্গে তা রুখে দিয়ে ইরানের বিজ্ঞানীরা নতুন পথ খুলে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন হামিদ ফাত্তাহি। তবে ভয়াবহ এই সাইবার হামলার চালানোর পিছনে যুক্তরাষ্ট্র রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু এখনই বলতে পারা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপমন্ত্রী।

এর আগে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ অযারি জাহরোমি সম্প্রতি জানিয়েছিলেন, ২০১৮ সালের মার্চ থেকে ২০১৯ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত তার দেশ তিন কোটি ৩০ লাখ সাইবার হামলা প্রতিহত করেছে



বিডি প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ

রাশিয়ায় চীনা নাগরিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা
... Read More>>

ক্যাসিনোকাণ্ড ও বিদেশে অর্থ পাচার: সিঙ্গাপুর যাচ্ছে দুদক টিম
... Read More>>

ভাল লাগলো এখানে জয়েন করে... Read More>>

আমি বিমুহিত এমন সুন্দর শোসাল সাইট পেয়ে। ... Read More>>

Milimishi is very unique company I can learn from here More things everybody can try ... Read More>>

18-Feb-2020 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 4722+)
প্রশ্নঃ পদ্মা সেতুর ফলে প্রত্যক্ষভাবে প্রায় ৪৪,০০০ বর্গ কিঃমিঃ বা বাংলাদেশের মোট এলাকার ২৯% অঞ্চলজুড়ে ৩ কোটিরও অধিক জনগণ প্রত্যক্ষভাবে উপকৃত হবে। বরিশালসহ পুরো দক্ষিণ অঞ্চলের সাথে রাজধানীর পরিবহণ ব্যায় ও সময় কমে আসবে। রেল, গ্যাস, বৈদ্যুতিক লাইন এবং ফাইবার অপটিক কেবল সম্প্রসারণের ব্যবস্থা রয়েছে। এই সেতুর ফলে দেশের জিডিপি উল্লেখ যোগ্য হারে বৃদ্ধি পাবে। পদ্মা সেতুর দৈঘ্য কত?
(A) ৬.১৫ কি. মি.
(B) ৪.৮ কিমি
(C) ৯.৫০ কি. মি.