বিস্ময়কর কারনে যেভাবে পৃথিবীর কেন্দ্রতে অবস্থিত কাবা শরীফ! জেনে অবাক হবেন

মুসলমানদের কিবলা পবিত্র কাবাঘর। হজের মৌসুমে প্রতিবছর লাখ লাখ মুসলমান কাবাঘর তাওয়াফ করতে মক্কায় গমন করেন। পবিত্র কোরাআন ও হাদিসের ব্যখ্যায় পৃথিবীর কেন্দ্রস্থলে মক্কা নগরের অবস্থান হওয়ায় ‘বায়তুল্লাহ’ বা ‘কাবাঘর’ মক্কাতেই স্থাপন করা হয়।

আল্লাহতায়ালার নির্দেশে ফেরেশতারা প্রথম দুনিয়ায় কাবাগৃহ নির্মাণ করে এখানে ইবাদত করেন। কাবাঘরটি আল্লাহর আরশে মুয়াল্লার ছায়াতলে সোজাসুজি সপ্তম আসমানে অবস্থিত মসজিদ বাইতুল মামুরের আকৃতি অনুসারে ভিত্তিস্থাপন করা হয়। আল্লাহতায়ালা কাবাগৃহকে মানবজাতির ইবাদতের কেন্দ্রস্থলরূপে নির্দিষ্ট করেন।

মুসলিম মানবজাতির ইবাদতের কেন্দ্রস্থল কাবা শরীফ পৃথিবীর ঠিক কেন্দ্রতেই অবস্থিত। কিন্তু বর্তমান সময়ে জ্ঞান বিজ্ঞানের প্রসারের ফলে অনেকেই এই বিষয়টিকে উড়িয়ে দিতে চান।

পবিত্র কাবা শরীফের অবস্থান ও সৃষ্টিকাল নিয়ে ইসলামের ব্যখ্যা: বেহেশত থেকে দুনিয়ায় পাঠানোর পর আদি মানব-মানবী হজরত আদম (আ.) ও হজরত হাওয়া (আ.) ইবাদতের জন্য একটি মসজিদ প্রার্থনা করেন। আল্লাহতায়ালা তাদের দোয়া কবুল করে কাবাগৃহকে ইবাদতের কেন্দ্র হিসেবে নির্ধারণ করে দেন। এরপর হজরত নূহ (আ.)-এর যুগের মহাপ্লাবনে কাবা শরিফ ধসে যায়। পরে আল্লাহর হুকুমে হজরত ইবরাহিম (আ.) তার পুত্র হজরত ইসমাইল (আ.)-কে সঙ্গে নিয়ে কাবাগৃহের পুনর্নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করেন।

আল্লাহতায়ালার নির্দেশে আল্লাহর ঘর পবিত্র কাবা শরিফের নির্মাণ হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর জীবনের অমর কীর্তি ও অন্যতম অবদান।আরও পড়ুন: সব পর্নো সাইট বন্ধ হবে এ সপ্তাহেই বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ব্যক্তি পবিত্র কাবাঘর পুনঃনির্মাণের সৌভাগ্য অর্জন করলেও একমাত্র হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর নির্মাণের কথা আল্লাহতায়ালা পবিত্র কোরআনে কারিমের অংশ বানিয়ে কিয়ামত পর্যন্ত মুসলিম উম্মাহর জন্য সংরক্ষিত করেছেন।পবিত্র কোরআনে কারিমে ওই ঘটনাটি খুবই চিত্তাকর্ষক ভঙ্গিতে উপস্থাপন করা হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে, ‘স্মরণ করো, যখন ইবরাহিম ও ইসমাঈল কাবাগৃহের ভিত্তি স্থাপন করেছিল।

তারা দোয়া করেছিল, হে পরওয়ারদেগার! আমাদের এ আমলটুকু কবুল করো। নিশ্চয়ই তুমি শ্রবণকারী, সর্বজ্ঞ। ওহে পরওয়ারদেগার! আমাদের উভয়কে তোমার আজ্ঞাবহ করো এবং আমাদের বংশধর থেকে একটি অনুগত জাতি সৃষ্টি কর। আমাদের হজের রীতিনীতি বলে দাও এবং আমাদের ক্ষমা করো। নিশ্চয়ই তুমি তওবা কবুলকারী, দয়ালু। হে আমাদের প্রভু! এ ঘরের পড়শিদের মধ্য থেকে একজন রাসূল পাঠাও, যিনি তাদের কাছে তোমার আয়াতগুলো পাঠ করবেন।

তাদের কিতাব ও হেকমত শিক্ষা দেবেন এবং তাদের পবিত্র করবেন। নিশ্চয়ই তুমি পরাক্রমশালী, প্রজ্ঞাময়।’ -সূরা বাকারা : ১২৭-১২৯আরও পড়ুন: ইসলামের অলৌকিক ক্ষমতা দেখুন !!বাচ্চাটির দেহব্যাপী আল্লাহু লিখা ভেসে উঠেছে !কাবাগৃহের নির্মাণ কোনো সাধারণ ঘটনা নয়। পৃথিবীর ইতিহাসে এর চেয়ে মর্যাদাপূর্ণ বিষয় আর কিছুই হতে পারে না। কাবা নির্মাণের সময় হজরত ইবরাহিম (আ.) যে দোয়া করেছিলেন সেগুলো যত্নের সঙ্গে উল্লেখ করা হয়েছে। দুনিয়ার মানুষের স্বভাব হলো, সমাজে বা ধর্মীয় কাজে সামান্য অবদান রেখে মানুষের সামনে তা বারবার উল্লেখ করে এবং আত্মপ্রশংসায় ডুবে যায়।

অথচ সরাসরি আল্লাহতায়ালার ঘর নির্মাণ করছেন, তবুও তার মনে এক বিন্দু অহঙ্কার নেই। ছিল বিনয়পূর্ণ মিনতি। বিনয়াবনত কণ্ঠে বারবার তিনি বলেছেন, ‘হে আল্লাহ! মেহেরবানি করে আমাদের এ খেদমতটুকু কবুল করে নাও।’ দোয়ার দ্বিতীয় বাক্যে বলেছেন, ‘হে প্রভু! তুমি আমাদের উভয়কে তোমার আজ্ঞাবহ করো।’বস্তুত দোয়াতে মানব জাতির জন্য শিক্ষা রয়েছে, মসজিদ নির্মাণ তো একটি নিদর্শন। তা মূল লক্ষ্য নয়। মূল লক্ষ্য হচ্ছে, জীবনের সর্বক্ষেত্রে আল্লাহর সামনে নিজেকে সঁপে দেয়া। তার বিধি-নিষেধ বিনাবাক্যে মেনে নেয়া। এজন্য মসজিদ নির্মাণের সময় হজরত ইবরাহিম (আ.) জীবনের মূল লক্ষ্য সাধনের দোয়া করেছেন। সে অমূল্য দোয়া শুধু নিজের জন্যই নয় বরং অনাগত বংশধরের জন্যও করেছেন।

অতঃপর এ ঘরের মর্যাদা রক্ষা ও তার জিয়ারতের রীতিনীতি বাতলে দেয়ার জন্য প্রার্থনা করেছেন।আরও পড়ুন: জিভের রঙ দেখে কি করে বুঝবেন , আপনি কোন রোগে আক্রান্ত ? হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর প্রত্যেকটি দোয়া কবুল হয়েছে। ইতিহাসে আছে, তার বংশধরের মধ্যে সর্বদা একটি দল আল্লাহর আজ্ঞাবহ ছিল। এমনকি জাহেলিয়াতের আমলে আরবের সর্বত্র যখন মূর্তি-পূজার জয়জয়কার ছিল তখনও ইবরাহিমি বংশের কিছু লোক একত্ববাদ ও পরকালে বিশ্বাসী এবং আল্লাহতায়ালার আনুগত্যশীল ছিলেন।হজরত ইবরাহিম (আ.) কর্তৃক বায়তুল্লাহ নির্মিত হওয়ার পর থেকে সব যুগেই তার জিয়ারতও অব্যাহত ছিল।

শেষ নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর সে দোয়ারই ফসল, যা তিনি বায়তুল্লাহ নির্মাণকালে করেছিলেন। এ প্রসঙ্গে হাদিসে ইরশাদ হয়েছে, হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘আমি আমার বাবা ইবরাহিম (আ.)-এর দোয়া এবং আমার ভাই ঈসা (আ.)-এর সুসংবাদ।’ -মুস্তাদরাকে হাকেমইসলামের ইতিহাসে ৬৩১ খ্রিস্টাব্দে নবম হিজরিতে হজের বিধান ফরজ হয়। পরের বছরে ৬৩২ খ্রিস্টাব্দে মহানবী (সা.) হজ আদায় করেন। তিনি যেখানে, যে সময়ে, যে তারিখে, যে নিয়মে যেসব আহকাম-আরকান পালন করেন, প্রতিবছর ৮ থেকে ১৩ জিলহজ মক্কা মুকাররমা এবং এর আশপাশের এলাকাজুড়ে নির্দিষ্ট নিয়মে সেভাবেই পবিত্র হজ পালিত হয়ে আসছে।

খুবই সুন্দর একটা গজল। ... Read More>>

রিকশার নগরী আমাদের এই রাজধানী ঢাকা.... Read More>>

--: শীঘ্র ইফতার করা :--

সাহল ইবনু সা‘দ (রাঃ) হতে বর্ণিত যে, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ লোকেরা যতদিন শীঘ্র ইফতার করবে, ততদিন তারা কল্যাণের উপর থাকবে।
(সহীহ বুখারী, হাদিসে নং- ১৯৫৭)

(মুসলিম ১৩/৯, হাঃ ১০৯৮, আহমাদ ২২৮২৮) (আধুনিক প্রকাশনীঃ ১৮১৮, ইসলামিক ফাউন্ডেশনঃ ১৮৩০)

[হাদীসে জলদি জলদি ইফতার করার জন্য খুব তাগিদ দেয়া... Read More>>

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশ পত্র পাওয়া যাইতেছে কি না একটু কেউ জানালে উপকৃত হব।... Read More>>

পপি দেখতে গেলেন, হাসলেন এটিএম শামসুজ্জামান
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, নিজেকে প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]

... Read More>>

জীবন যেখানে যেমন... Read More>>

ঊনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থানের ছবি ... Read More>>

আমি পুরুস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছি ! এখন পুরুস্কার কি ভাবে পাবো ?... Read More>>

স্ত্রীকে বেশি ঘুমাতে দিন, না হলেই বিপদ!

সারাদিন বাসার কাজ করলেও পুরুষের তুলনায় বেশিই ব্যস্ত থাকতে হয় নারীদের। ঘুমাতেও পারেন কম। সন্তান হওয়ার পর তো আরও কমে যায়। কিন্তু বাড়ির কাজ তেমনটা না থাকায় পুরুষের ঘুম একটু বেশিই হয়ে থাকে। তবে এ বৈষম্য কিনা বিপদ ডেকে আনতে পারে, বলছে সাম্প্রতিক এক গবেষণা।

গবেষকরা বলছেন, পুরুষের তুলনায় মহিলাদের ২০ মিনিট... Read More>>

সেহরিতে খাবারের তালিকায় রাখবেন যে ৬ খাবার

মুসলিম জাহানের মহা পবিত্র মাস রমজান মাস শুরু হয়েছে। এই মাসে সুস্থভাবে রোজা পালনের ক্ষেত্রে আমাদের শরীরে সঠিক পুষ্টি খুবই জরুরি। আর সে ক্ষেত্রে সেহরি ও ইফতারের সময় সঠিক খাবার নির্বাচন করা আমাদের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সেহরিতে ভালোভাবে খাবার খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য, মাথাব্যথা, দুর্বলতা... Read More>>

ডিমের খোসার কয়েকটি গুণাগুণ সম্পর্কে জেনে নিন

ডিম ভালবাসেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল! ডিম খেতেও যেমন ভাল, তেমনই স্বাস্থ্যকর। ডিমের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে মোটামুটি আমরা প্রায় সকলেই জানি। কিন্তু জানেন কি ডিমের খোসাও খুবই উপকারী! আসুন জেনে নেওয়া যাক, ডিমের খোসা কয়েকটি আশ্চর্য গুণাগুণ সম্পর্কে…

১. সাধের ফুলের বাগানে বার বার পোকার উপদ্রবে... Read More>>

ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় তেলাপিয়া মাছ

বাজারে সারা বছর পাওয়া যায়-এমন মাছের মধ্যে তেলাপিয়া অন্যতম। পুষ্টিবিদদের মতে, এ মাছের পুষ্টিগুণ অসাধারণ! তেলাপিয়ায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি-১২ এবং ফসফরাসের মতো একাধিক অপরিহার্য উপাদান।

তবে সম্প্রতি একাধিক গবেষণায় তেলাপিয়া মাছের বেশ কয়েকটি ক্ষতিকর দিক সামনে এনেছেন... Read More>>

পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা ধরে রাখার উপায়


কর্পোরেট পৃথিবী আমাদের জীবনযাত্রাকে অনেক ব্যস্ত করে দিয়েছে। বর্তমান সময়ে অনিয়মিত ডায়েট ও শারীরিক-মানসিক চাপের কারণে বন্ধ্যাত্ব সাধারণ সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। নারী বা পুরুষ- উভয়ের ক্ষেত্রেই সন্তানহীনতার সমস্যার পিছনে বড় কারণ মাত্রাতিরিক্ত শারীরিক-মানসিক চাপ ও অনিয়মিত... Read More>>

শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ যা জানান দেয়

ঘুম থেকে উঠে দেখা গেল চোখ ফুলে গেছে কিংবা ঠোঁটে ফোস্কা পড়েছে৷ আবার অনেকের হাতের নথ ভাঙা শুরু হয়৷ কিংবা হঠাৎ করেই হাড়ে ব্যথা করে৷ এসব কি কোনো অসুখের পূর্ব লক্ষণ? নাকি এমনিতেই সেরে যায় এসব?

হাতের নখ

অনেক সময় অল্পতেই হাতের নখ ভাঙতে দেখা যায়৷ বিশেষ করে মেয়েদের ক্ষেত্রে এমনটা বেশি হয়৷ তবে বেশিরভাগ... Read More>>

সফেদার এতো গুণ!


আমাদের খুবই পরিচিত ফল সফেদা। ফলটি দেখতে যেমন সুন্দর, খেতেও তেমন সুস্বাদু। শুধু দেখতে ও খেতে নয়, সফেদা গুণেও অনন্য।

১. সফেদায় প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন এ ও সি থাকে। ভিটামিন এ চোখের পক্ষে খুবই ভাল। আর শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন সি’র জুড়ি মেলা ভার।

২. সফেদায় প্রচুর পরিমাণে শর্করা রয়েছে। এটি শরীরকে চাঙ্গা... Read More>>

⭕ তিনবার সূরা ইখলাস পাঠ = এক বার কোরআন পাঠ করার সমান।
⭕চার বার সূরা কাফিরুন পাঠ = এক খতম কোরআন পাঠ করার সমান।
⭕ফরয নামাজের পর আয়াতুল কুরসি পাঠ = মৃত্যু ছাড়া জান্নাতে যেতে আর কোন বাধা থাকে না।
⭕ঘুমানোর সময় আয়াতুল কুরসি পাঠ করলে = একজন ফেরেশতা সারারাত পাহারা দিবে।
⭕ঘুমানোর সময় সূরা কাফিরুন পাঠ করা = শির্ক থেকে মুক্ত।
⭕রাতে সূরা মূলক পাঠ = কবরের... Read More>>

জেনে নিন কোন দেশে ধর্ষণের কী সাজা!


ধর্ষণকে প্রতিটি দেশ,সমাজ, এমনকি প্রতিটি ব্যবস্থায় সবথেকে বড় এবং ঘৃণ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। একই সঙ্গে ধর্ষণের বিরুদ্ধে শাস্তির বিধানও সেভাবে নির্ধারণ করা হয়। কোথাও কোথাও আবার এই বিষয়টিকে সামাজিক ব্যাধি বলেও ধরে নেওয়া হয়। এর ফলে নির্যাতিতার জীবনে নেমে আসে নানা ধরনের বাধা। তবে বিশ্বের এমন কতগুলো... Read More>>

ভ্যান চালিয়ে জমাকৃত টাকায় পবিত্র হজ্ব পালন

হজ্ব আরবী শব্দ, যার আবিধানিক অর্থ অভিপ্রায় বা সংকল্প। হজ্বের প্রস্তুতি মুসলমানদের ওপর ফরজ ইবাদত সমূহের অন্যতম। ফরজ অর্থ অবশ্যই করণীয় যা আল্লাহর হুকুম বা নির্দেশ।

আল্লাহর এই হুকুম পালনের অভিপ্রায়ে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের উত্তর বাসুদেবপুর গ্রামের মোঃ মোজাফ্ফর... Read More>>

মৃত্যু সম্পর্কে ৯টি বিস্ময়কর তথ্য!

প্রাণ যার আছে মৃত্যু তার নিশ্চিত। মৃত্যুর থেকে অনিবার্য সত্য আর কিছুই হয় না। আমরা মৃত্যুকে নিয়ে অনেক ধরণের ব্যাখ্যা শুনে থাকি। কেউ কেউ আবার মৃত্যুকে ঘিরে রচনা করে রোম্যান্স। কেউ বা মৃত্যুকে একটা ভয়ের ব্যাপার বলেই ধরে নেই। আর এসবের ঊর্ধ্বে মৃত্যুর প্রসঙ্গ উঠলে কেমন একটা বিভ্রান্ত চোখে তাকান... Read More>>

৯ ঘণ্টাব্যাপী ফজরের আজান হয় পৃথিবীতে

আজান নামাজের জন্য ডাক দিয়ে যায়। মহাকল্যাণের হাতছানি দেয়। আজান নব উদ্যমে জাগরণের প্রতীক। ফজরের আজানের আওয়াজে পৃথিবীর ঘুম ভাঙে। কোনো কোনো গবেষণা বলছে, পৃথিবীর কোনো না কোনো প্রান্তে সব সময় আজান হয়। লিখেছেন আতাউর রহমান খসরু ও মুফতি মুহাম্মদ মর্তুজা।

ফজরের পবিত্র আজানের ধ্বনিতে ঘুম ভাঙে মুসলমানের।... Read More>>

গরমে ঘামাচির সমস্যা? জেনে নিন সমাধান

গরমে একটু পরপর তৃষ্ণা পাওয়া, ঘাম এবং অস্বস্তির পাশাপাশি আরেকটি বড় সমস্যা হলো ঘামাচি। এই এক ঘামাচির কারণে সবটুকু স্বস্তি চলে যায় যেন। ঘামাচি হলে চুলকানি তো আছেই সেইসঙ্গে ত্বকের ধরন বুঝে এটি প্রভাব বিস্তার করতে থাকে। র‌্যাশ, প্রদাহ সব মিলিয়ে ত্বকের ক্ষতি তো হয়ই, সঙ্গে অস্বস্তি ও শারীরিক কষ্টও... Read More>>

রাতভর ফোন চার্জে দিয়ে রাখার অভ্যাস ত্যাগ করুন

১) রাতভর ফোন চার্জে দিয়ে রাখার অভ্যাস ত্যাগ করুন। এর ফলে মোবাইল অত্যধিক গরম হয়ে যাওয়া ছাড়াও ব্যাটারির কার্যক্ষমতা হ্রাস পায়।
২) চার্জ দেওয়ার সময় ফোনের কভার অবশ্যই খুলে রাখুন। চার্জ দেওয়ার সময় ফোনে যে তাপ উৎপন্ন হয়, কভার থাকায় তা বেরতে পারে না। ফলে মোবাইল ফোন গরম হয়ে ওঠে।

৩) অন্য ফোনের... Read More>>

কুরবানির ঈদের সময়ে এক দরিদ্র মালিকের গরু বিক্রি করে দেওয়ার পর,,গরুটাকে বিদায় জানানোর দৃশ্য ♥... Read More>>

রক্তনালীর ব্লক রোধ করে যে ৭ খাবার

রক্তনালী ব্লক রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। জীবন পরিচালনায় কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চললে এই রোগকে সহজেই প্রতিরোধ করা যেতে। সেজন্য নিচের সাতটি খাবার খেতে পারেন।

১. আপেল
এই ফলটিতে রয়েছে পেকটিন নামক কার্যকরী উপাদান যা দেহের খারাপ কোলেস্টেরল কমায় ও রক্তনালীতে প্লাক জমার প্রক্রিয়া ধীর করে দেয়। গবেষণা বলছে... Read More>>

মশা তাড়ানোর কৌশল জেনে নিন

মশা বহন করে নানা ধরনে সংক্রামক রোগজীবাণু। যা অনেক সময় মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে। মশার মাধ্যমে চিকুনগুনিয়া, ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু, ফাইলেরিয়া, পীত জ্বর, জিকা ভাইরাস প্রভৃতি মারাত্মক রোগ সংক্রমিত হয়ে থাকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক মশা তাড়ানোর সহজ কৌশল-

* নিমের তেল ও পুদিনার ব্যবহার:
নিমের মশা তাড়ানোর বিশেষ একটি গুণ... Read More>>

প্যারাসিটামল সম্পর্কে কিছু তথ্য

জ্বর ও ব্যথা নিরাময়ে প্যারাসিটামলের মতো নিরাপদ ওষুধ খুব বেশি নেই! তাই এই ওষুধ আমাদের দেশে বহুল ব্যবহৃত। অনেকেই শরীরের তাপমাত্রা বাড়লে বা একটু জ্বর জ্বর ভাব দেখলেই প্যারাসিটামল খেয়ে নেন। কারণ, জ্বর গায়ে বাড়িতে শুয়ে থাকলে কী চলবে! তাই ছুটি-ছাটার অভাবে অনেকেই প্যারাসিটামল খেয়ে স্কুলে, কলেজে বা কাজে... Read More>>

আজকের কুইজ (20-May-2019)

আজ অংশগ্রহণ করেছেন:2340 জন
প্রশ্নঃ ‘মাউন্ট এভারেষ্ট’ নেপালে অবস্থিত বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এর উচ্চতা প্রায় ২৯ হাজার ৩৫ ফুট। এই পর্বতের চূড়ায় উঠা বেশ কষ্টসাধ্য, ২৩,৫০০ ফুট পৌঁছানোর অক্সিজেনের সিলিন্ডারের সাহায্যে শ্বাস-প্রশ্বাস চালাতে হয় (অক্সিজেন প্রতি ৪ ঘন্টায় শেষ হয়ে যায়), তাই এভারেস্টের চূড়া পর্যন্ত যেতে কমবেশি ১২টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের প্রয়োজন হয়। সরকারিভাবে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ কোনটি?
(A) তাজিংডং (বান্দরবান)
(B) রাংটলাং (রাঙামাটি)
(C) দুমলং (রাঙামাটি)